আজকালের প্রতিবেদন- বঙ্গোপসাগরে দানা বাঁধা নিম্নচাপ অক্ষরেখায় হচ্ছে ঘাম, বুধবার থেকে ঝরবে বৃষ্টি। চলতে পারে শুক্রবার পর্যন্ত। সোমবার পূর্বাভাসে এমনটাই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।
গত দু’‌তিনদিন ধরে বেলা বাড়ার সঙ্গে হালকা ঘাম হচ্ছে। রোদের তেজও থাকছে বেশি। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, তামিলনাডুর উপকূলে দানা বেঁধে রয়েছে একটি ঘূর্ণাবর্ত। সেটি থেকে একটি নিম্নচাপ রেখা গড়ে উঠেছে। সেটি উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে দক্ষিণ–পশ্চিম বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃত হয়ে রয়েছে। তারই প্রভাবে জোলো হাওয়া ঢুকছে গাঙ্গেয় দক্ষিণবঙ্গে। বেলা বাড়ার সঙ্গে যা ঘামে পরিণত হচ্ছে। দুপুরের দিকে গরমে, ঘামে অস্বস্তি হচ্ছে। আকাশে মেঘ থাকায় পরিস্থিতি গুমোট হচ্ছে। মঙ্গলবারও এই অবস্থা থাকবে। তবে বুধবার থেকে আকাশে মেঘ বাড়বে। হবে বৃষ্টি। রাজ্যের পশ্চিমের জেলাগুলিতেই বৃষ্টি হবে বেশি। কলকাতা ও সংলগ্ন অঞ্চলে থাকছে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা। শুধু দক্ষিণবঙ্গই নয়, বৃষ্টি হতে পারে মালদা এবং দুই দিনাজপুরেও। মঙ্গলবার উপকূলের জেলাগুলিতে হালকা বৃষ্টি ঝরতে পারে। এদিকে মৌসম ভবন জানিয়েছে, বুধবার নাগাদ দক্ষিণ–পশ্চিম ও সংলগ্ন পশ্চিম–মধ্য বঙ্গোপসাগর থেকে তামিলনাডু ও অন্ধ্রপ্রদেশের দক্ষিণাংশের উপকূল পর্যন্ত একটি নিম্নচাপ গড়ে উঠতে চলেছে। এটি দানা বাঁধার পর যদি শক্তি বাড়ে এবং এ রাজ্যের উপকূলে দানা বেঁধে থাকা নিম্নচাপটির সঙ্গে জুড়ে যায় তাহলে এ রাজ্যের উপকূলবর্তী অঞ্চলগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা আরও বেড়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে শুক্রবারের পরও এ রাজ্যে বৃষ্টি চলতে পারে। সেক্ষেত্রে কালীপুজোর সময়ও মেঘ–বৃষ্টির খেলা চলতে পারে। আবহাওয়া দপ্তর অবশ্য জানিয়েছে, সবটাই নির্ভর করছে তামিলনাডু ও অন্ধ্রপ্রদেশের সংযোগস্থলে দানা বাঁধতে চলা নিম্নচাপটি কী পরিমাণ শক্তি সঞ্চয় করবে তার ওপর।‌

জনপ্রিয়

Back To Top