অমিতাভ বিশ্বাস,তেহট্ট: কালীপুজো উপলক্ষে নৌকো দৌড় প্রতিযোগিতায় নামল চঁাদেরঘাট গ্রামবাসী। গত তিন বছরের মতো এবারেও গ্রাম সংলগ্ন জলঙ্গি নদীতে নৌকো দৌড় প্রতিযোগিতা হল বৃহস্পতিবার। এই নৌকো দৌড় প্রতিযোগিতায় দূর–দূরান্তের বিভিন্ন গ্রাম থেকে ১৫টি নৌকো অংশগ্রহণ করেছিল। নদীর দুই পাড়ে প্রচুর মানুষ উৎসাহ নিয়ে ভিড় জমিয়েছিলেন। 
গ্রামের মদনমোহন মণ্ডল জানান, এবারে নৌকো দৌড় প্রতিযোগিতা করতে এক লক্ষ টাকা সরকারি অনুদান পাওয়া গেছে। পুরো টাকাটাই নৌকো দৌড়ে খরচ হয়ে যাবে। কৃষ্ণ মণ্ডল বলেন, ‘‌লক্ষ্মীপুজো উপলক্ষে পাশের কুষ্টিয়া গ্রামে নৌ বাইচ প্রতিযোগিতা দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে। আমরা গ্রামের মানুষ প্রতি বছরই সেই গ্রামে নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা দেখতে যেতাম। তার পর আমরা ঠিক করলাম পাশের গ্রামে যদি হয়, তা হলে আমরা কেন পারব না! আমাদের বিশ্বাস ছিল, চেষ্টা করলে আমরাও পারব। তার পর তিন বছর আগে থেকে কালীপুজো উপলক্ষে জলঙ্গি নদীতে নৌকো বাইচ করে আসছি।’‌ 
এই নৌকো বাইচ প্রতিযোগিতার মূল উদ্যোক্তা নদী পাড় সংলগ্ন নিউ প্রতিবাদী ক্লাব। তা ছাড়াও আশপাশের ক্লাবগুলো এই প্রতিযোগিতাকে সহযোগিতা করে থাকে। সন্তোষ প্রামাণিক জানান, কয়েক বছর আগে গ্রামের এক যুবক মানিক প্রামাণিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তঁার স্মৃতির উদ্দেশ্যে এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা করা হয়। 
সত্যজিৎ তালুকদার নামে এক গ্রামবাসীর কথায়, আমাদের সীমান্তবর্তী এই গ্রামে বিনোদন বলতে পুজো পার্বণ। আর এই পুজো পার্বণে মানুষের মনকে রাঙিয়ে দিতেই আমাদের এলাকায় কালীপুজো উপলক্ষে নৌকো বাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। প্রতিযোগিতা শেষে বিচারকদের রায় অনুযায়ী বিভিন্ন পুরস্কার দেওয়া হয়। এবার পুরস্কারের তালিকায় রয়েছে রঙিন টিভি, ফ্রিজ, আলমারি–সহ নানা ধরনের সামগ্রী। এইগুলি প্রতিযোগীদের হাতে তুলে দেওয়া হবে। আগামী বছর প্রতিযোগিতাটি যাতে আরও সুন্দর করা যায়, সেই বিষয়েও আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাব।

তেহট্টের চঁাদের হাটে জলঙ্গি নদীতে কালীপুজো উপলক্ষে নৌকো বাইচ প্রতিযোগিতা। ছবি:‌ রমণী বিশ্বাস

জনপ্রিয়

Back To Top