আজকালের প্রতিবেদন,গোঘাট: ছ’‌মাস ধরে ভুগছে অসহ্য মাথার যন্ত্রণায়। একমাস আগেই ধরা পড়েছে ব্রেন টিউমার। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রয়োজন অস্ত্রোপচারের। কিন্তু এর জন্য কমপক্ষে ২ লক্ষ টাকা দরকার বলে জানিয়েছেন কলকাতা নিউরোসায়েন্স কর্তৃপক্ষ। আর এতেই মাথায় হাত পড়েছে গোঘাটের পশ্চিমপাড়া গ্রামের সমীর সঁাতরা ও তার বাবা–‌মায়ের।
সমীর আরামবাগ নেতাজি মহাবিদ্যালয়ের ম্যাথমেটিক্স অনার্সের ফাইনাল ইয়ারের ছাত্র। পড়াশোনায় বরাবরই ভাল। কিন্তু হঠাৎই এই ব্রেন টিউমার তার সব কিছু উলোটপালট করে দিয়েছে। যদিও সমীরকে সুস্থ করে তুলতে চেষ্টার কোনও কসুর করছে না তঁার সহপাঠীরা। ইতিমধ্যেই কলেজের ম্যাথমেটিক্স অনার্সের ছাত্র‌ছাত্রীরা প্রায় কুড়ি হাজার টাকা তুলেছে। এছাড়াও কলেজ ফান্ড থেকে তিন হাজার টাকা দিয়েছে। কিন্তু এই টাকায় অস্ত্রোপচার সম্ভব নয়। সমীরের বাবা সামান্য চাষি। বিঘেখানেক জমি আছে। তঁারা চিন্তা করছেন বেঙ্গালুরুতে গিয়ে যদি কোথাও কম খরচে অস্ত্রোপচার করানো যায়!‌ সে ক্ষেত্রে শেষ সম্বল জমিটুকু বিক্রি করে দেবেন। সমীরের সহপাঠী শ্যামসুন্দর কর্মকার বলেন, ‘‌আমরা চেষ্টা করছি সমীরকে সুস্থ করে তোলার। বন্ধুরা যে যার সাধ্যমতো সাহায্য করছি। আরও কিছু টাকা কী করে তোলা যায়, সেই চেষ্টা করছি। আমরা চাই, যে ভাবেই হোক সমীর সুস্থ হয়ে উঠুক।’‌
অন্যদিকে, সমীরের বাবা শঙ্কর সঁাতরা বলেন, ‘‌আমার তেমন কোনও উপার্জন নেই। সম্বল বলতে ওইটুকু জমি। সেটুকু বিক্রি করেই বা কত টাকা পাওয়া যাবে!‌ তাই কোনও সহৃদয় ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান যদি আর্থিক সাহায্য নিয়ে পাশে দঁাড়ান, তা হলে ছেলেটা সুস্থ হয়ে উঠবে। আবার তঁার পড়াশোনার জগতে ফিরে যেতে পারবে। যোগাযোগ:‌ ৮৪৮১০ ৪৮৭২১।‌                          

 

ছবি: তুফান মণ্ডল

জনপ্রিয়

Back To Top