Tet: ‌বেছে বেছে ২৭৩ জনকেই কেন বাড়তি এক নম্বর?‌ আদালতের প্রশ্নের মুখে নিরুত্তর পর্ষদের আইনজীবীরা

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ টেট নিয়োগে দুর্নীতিতে সরগরম রাজ্য।

প্রাথমিক নিয়োগে চাকরিপ্রার্থীদের একটি বিশেষ অংশকে বাড়তি নম্বর দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। জবাবে পর্ষদের আইনজীবীরা যা যা যুক্তি দিয়েছিলেন তার প্রত্যেকটিই না পসন্দ বিচারপতিদের। 
বৃহস্পতিবার টেটে নিয়োগ সংক্রান্ত একটি মামলার শুনানি ছিল কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সুব্রত তালুকদার এবং বিচারপতি লপিতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে। শুনানিতে আদালত পর্ষদের কাছে জানতে চায়, প্রশ্ন ভুল থাকার জন্য যখন পরীক্ষার্থীদের বাড়তি ১ নম্বর দেওয়ার সিদ্ধান্ত হল, তখন তা সমস্ত পরীক্ষার্থীকে দেওয়া হয়নি কেন? আদালতের কাছে অভিযোগ ছিল, ২৩ লক্ষ প্রার্থীর মধ্যে শুধুমাত্র ২৭৩ জনকে ওই বাড়তি নম্বর দেওয়া হয়েছিল। দুই বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের প্রশ্ন, পর্ষদ কীসের ভিত্তিতে ওই ২৭৩ জনকে বেছে নিয়েছিল? বিচারপতিদের কথায়, ‘‌প্রশ্ন যদি ভুল থেকে থাকে তবে কৃতকার্য এবং অকৃতকার্য–সব প্রার্থীদেরই এক নম্বর করে বাড়ানো উচিত ছিল। তাহলে কেন এই বৈষম্য?‌’‌ পর্ষদের আইনজীবীরা বলেন, আইন মেনে শুধুমাত্র প্রশিক্ষিত প্রার্থীদেরই বাড়তি নম্বর দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আদালত পাল্টা জানতে চায়, কোথাও কি বলা হয়েছিল যাঁরা ওই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন বা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন তাঁদেরই নম্বর দেওয়া হবে? এর জন্য আগে থেকে কোনও বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছিল?‌ পর্ষদের আইনজীবীরা আদালতের এই প্রশ্নে নিরুত্তর থাকেন। 

আরও পড়ুন:‌ নিউ সেক্রেটারিয়েট বিল্ডিং থেকে সরছে একাধিক দপ্তর, বদলে বসবে আদালত

আকর্ষণীয় খবর