দীপেন গুপ্ত,পুরুলিয়া: পুরুলিয়া জেলা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের আধিকারিকের ছেলেকে পিটিয়ে খুনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্রর চেহারা নিল পুরুলিয়ার কর্পূরবাগান–বোঙাবাড়ি এলাকা। দফায় দফায় বিক্ষোভে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে পুরুলিয়া–বরাকর রাজ্য সড়ক। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুরুলিয়া মফস্‌সল থানার পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছে, নিহত যুবকের নাম অরিজিৎ গাঙ্গুলি (২৬)। পুরুলিয়া শহরের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কর্পূরবাগান এলাকার বাসিন্দা ছিলেন অরিজিৎ। নিহতের বাবা বিবেকানন্দ গাঙ্গুলি পুরুলিয়া ডিস্ট্রিক্ট ইন্টেলিজেন্স অফিসার পদে কর্মরত। শুক্রবার সকালে তিনি জানান, কিছু যুবকের সঙ্গে তঁার ছেলের মনোমালিন্য ছিল, বিষয়টি বেশ কিছুদিন আগে অরিজিৎ তঁাকে জানিয়েছিলেন। খারাপ কিছু ঘটার আশঙ্কায় তখন থেকেই তঁাকে ওই সব বন্ধুদের থেকে দূরত্ব রেখে চলার পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বৃহস্পতিবার ঘটে যায় নির্মম ঘটনা। বিবেকানন্দবাবু বলেন, ‘‌বৃহস্পতিবার সন্ধেয় পুরুলিয়া মফস্‌সল থানার বোঙ্গাবাড়ি এলাকার কিছু যুবকের দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে ঝামেলা হয়। তাতে অরিজিতের এক বন্ধু মার খায়। তারপরই ওই বন্ধু অরিজিৎকে সেই ঘটনা জানানোর পর অরিজিৎ তাকে নিয়ে ঝামেলার জায়গায় যায়। সেখানে বিরুদ্ধ গোষ্ঠীর ছেলেরা লাঠি ও রড দিয়ে তার ছেলের মাথায় ও সারা শরীরে নির্মমভাবে আঘাত করে। ফলে, ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিশবাহিনী।’‌ বিবেকানন্দবাবু জানান, এই ঘটনায় মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে তিনি পুরুলিয়া মফস্‌সল থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩ যুবককে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

শোকার্ত পরিবার। (ইনসেটে) নিহত অরিজিৎ গাঙ্গুলি। ছবি: প্রতিবেদক‌

জনপ্রিয়

Back To Top