Phulpati: ডুয়ার্সে পালিত হল ফুলপাতি শোভাযাত্রা 

আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মহাসপ্তমীর দিন ডুয়ার্সের বিভিন্ন এলাকায় আড়ম্বরের সাথে অনুষ্ঠিত হল ফুলপাতি শোভাযাত্রা।

নেপালী ও গোর্খা সম্প্রদায়ের অধিবাসীরা দূর্গাপুজোর সময় ১৫ দিন ধরে চলা ‘‌বড়া দশেইন’‌ উৎসব এর অংশ হিসেবে ফুলপাতি অনুষ্ঠান করে থাকেন। জানা যায় আশ্বিনের শুক্লপক্ষের প্রতিপদ থেকে শুরু হয়ে কোজাগরী পূর্ণিমা পর্যন্ত চলে এই বড়া দশেইন। অনুষ্ঠানের প্রথম দিন বাড়িতে বাড়িতে মাটির সঙ্গে গোবর মিশিয়ে তৈরি করা হয় বেদি। এই বেদিতে স্থাপন করা হয় ঘট। এই ঘটের ভেতর থাকা মাটিতে বার্লির বীজ রোপন করা হয়, এরই সঙ্গে বেদিতে ছিটিয়ে দেওয়া হয় ধান, ভুট্টা সহ অন্যান্য শস্যের বীজ। গোর্খা সম্প্রদায়ের বিশ্বাস অনুযায়ী এই বেদী এবং ঘটেই মা ভবানী তথা দুর্গা বিরাজ করেন। ঘটে রাখা বার্লির বীজ অঙ্কুরিত হওয়ার পর তাকে ‘‌জামারা’‌ বলা হয়। বড়া দশেইন এর সপ্তম দিন এই জামরার ঘটের সঙ্গে কলাবউ, আখগাছ, শিবের স্বরূপ বেল গাছ সহ মোট নটি উপকরণ লাল কাপড় দিয়ে বেঁধে একত্রিত করা হয়। এগুলিকেই একত্রে ‘‌ফুলপাতি’‌ বলা হয়। মহাসপ্তমীর দিন এই ফুলপাতিকেই কাঁধে করে আড়ম্বরের সঙ্গে শোভাযাত্রা বের করা হয়। 
ফুলপাতি উপলক্ষে ভুটান সীমান্তবর্তী চামুর্চী শহরে জাঁকজমকপূর্ণ শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এছাড়াও বানারহাট, নাগরাকাটা, বীরপাড়াতেও ফুলপাতি শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। চামুর্চীর অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জলপাইগুড়ি জেলার পুলিশ সুপার দেবর্ষি দত্ত, অ্যাডিশনাল পুলিশ সুপার ওয়াংদেন ভুটিয়া, ডিএসপি ক্রাইম বিক্রমজিৎ লামা, বানারহাট থানার আইসি শান্তনু সরকার, চামুর্চী আউট পোস্টের ওসি তেনজিং ভুটিয়া, মন্ত্রী বুলু চিকবড়াইক, ভুটানের সামসি জেলার জোংদাগ (ডিজি) পাসাং দর্জি, ভুটানের প্রাক্তন তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রী ডি.এন ধুংগিয়েল, সামসি থানার ওসি মেজর সোনম ওয়াংচুক, সামসি বর্ডার আউটপোস্ট এর ওসি মেজর তানডিং সহ অনেকে।

আরও পড়ুন:‌ নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত বাংলাদেশি চিকিৎসক
 

আকর্ষণীয় খবর