মিল্টন সেন, হুগলি: কাকভোরেই লম্বা লাইন। দেখে অন্যত্র যাবে তারও জো নেই। লাইন বেড়েই চলেছে ছাপোষা ওই দোকানের সামনে। সকলেই একটিই পণ্য কিনে ফিরছেন। পেঁয়াজ। আর তার দামের ঝাঁঝে ক্রেতাদের চোখে জলও দেখা গেল না। হাসিমুখে এক ক্রেতা অবলীলায় জানালেন, মাংসের চেয়ে বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশি। ক’‌দিন তো হেঁসেলে মাংস কষানোই হয়নি। আজ হবেই হবে। আর ঠিক এভাবেই মানুষের মন ছুঁয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির স্বপ্নের প্রকল্প ‘‌সুফল বাংলা’‌। সারা বাংলার মতো হুগলির বিভিন্ন প্রান্তে থাকা ‘‌সুফল বাংলা’‌ বিপণি সারাদিন নিরন্তর গৃহস্থের পেঁয়াজের চাহিদা মিটিয়ে চলেছে। খোলা বাজারে ১৫০ টাকা দাম ছাড়িয়েছে পেঁয়াজ। কিন্তু ‘‌সুফল বাংলা’‌ পেঁয়াজ দিচ্ছে তার অর্ধেকের থেকেও অনেকটা কম দামে। কেজি প্রতি দাম মাত্র ৫৯ টাকা। আর স্বাভাবিকভাবেই তা কিনতে শুক্রবার ভোর থেকে উত্তরপাড়া, সিঙ্গুর, চুঁচুড়া, আরামবাগ এবং ত্রিবেণীর ‘‌সুফল বাংলা’–র স্থায়ী‌ বিপণির সামনে ভিড় জমেছে। সস্তায় হেঁসেলে পেঁয়াজ জোগাতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে পেঁয়াজ কিনছেন ক্রেতারা। এছাড়াও ৪টি ভ্রাম্যমাণ বিপণি ঘুরছে পাড়ায় পাড়ায়। তবে নিয়ম করে মাথা পিছু ৫০০ গ্রাম করে পেঁয়াজ দেওয়া হচ্ছে গ্রাহকদের। বলা বাহুল্য, তাঁরা তাতেই খুশি।

চারু মার্কেট এলাকার সুফল বাংলা বিপণিতে পেঁয়াজ কেনার ‌লাইন। শুক্রবার সকালে। ছবি: বিজয় সেনগুপ্ত

জনপ্রিয়

Back To Top