সোমনাথ নন্দী, ঝাড়গ্রাম: পুজোর আগে পর্যটক টানতে ঝাড়গ্রামে নিয়ে আসা হল আরও একটি চিতা বাঘ হর্ষিণীকে। নতুনভাবে সাজানো ঝাড়গ্রাম জুলজিক্যাল পার্কে চিতা বাঘ সোহেলের সঙ্গিনী হবে সে। উত্তরবঙ্গের খয়েরবাড়ি রেসকিউ সেন্টার থেকে নিয়ে আসা হয়েছে সেটিকে। গত দু’‌বছর আগে ঝাড়গ্রাম জুলজিক্যাল পার্কে যখন সোহেলকে আনা হয়, সঙ্গে ভুল করে আরও একটি পুরুষ বাঘ চলে আসে। এর পর সোহেলের সঙ্গিনী খোঁজা হচ্ছিল। এবার পাওয়া গেল সেই সঙ্গিনী।
নতুন এই অতিথিকে আপাতত ১৫ দিন আলাদা খঁাচায় রেখে পর্যবেক্ষণ করা হবে। দেখা হবে তার মেজাজ। কারণ, গত ১২ ফেব্রুয়ারি খয়েরবাড়ি চা বাগানে ঢুকে পড়েছিল এই স্ত্রী চিতা বাঘটি। তার পরই তাকে ধরা হয়। তখন তার স্থান হয় খয়েরবাড়ি রেসকিউ সেন্টারে। জুলজিক্যাল পার্কের চিকিৎসক তথা ঝাড়গ্রাম প্রাণী সম্পদ বিকাশ দপ্তরের সহ অধিকর্তা চঞ্চল দত্ত বলেন, ‘‌উত্তরবঙ্গ থেকে নিয়ে আসা বাঘিনীটিকে ১৫ দিন আলাদা ভাবে রেখে দেখা হবে কোনও রোগ আছে কিনা, তার হালচাল ইত্যাদি।’‌ এদিকে, ঝাড়গ্রাম জুলজিক্যাল পার্কে চিতা বাঘের সংখ্যা বেড়ে দুটি হয়ে যাওয়ায় পার্কে পর্যটকের সংখ্যা বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে। গত ৫ সেপ্টেম্বর এখান থেকে হস্তি শাবক ফাল্গুনীকে কুনকি করতে উত্তরবঙ্গের জলদাপাড়ায় নিয়ে যাওয়া হয়।

জনপ্রিয়

Back To Top