আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মহাপ্রভুর জন্মভিটে তথা তীর্থস্থান নবদ্বীপ এবার পেতে চলেছে হেরিটেজ শহরের তকমা। নবদ্বীপ পুরসভা কর্তৃপক্ষের দাবি, এই প্রথম রাজ্যের কোনও শহর হেরিটেজ তকমা পেতে চলেছে। তাই এটা খুব গর্বেরও বিষয়। নবদ্বীপের মানুষজনের এই বিষয়টি নিয়ে অনেক আবেগ জড়িয়ে আছে। সেখানে হেরিটেজ তকমা সেই আবেগকে সম্মান দেওয়ার মতো। 
কবে এই হেরিটেজ শহরের তকমা মিলবে?‌ ইতিমধ্যেই পুরসভাকে একটি চিঠি দিয়ে এই বিষয়ে জানানো হয়েছে। হেরিটেজ শহর হিসেবে প্রথম কী পরিকল্পনা তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। নবদ্বীপ পুরসভার চেয়ারম্যান বিমানকৃষ্ণ সাহা জানান, প্রাচীন এই শহরকে হেরিটেজ হিসেবে ঘোষণা করা হবে। তাই কিছু কাজ করা হবে। শহরের নিকাশি ব্যবস্থাও ঢেলে সাজাতে বলা হয়েছে।
পুরসভা সূত্রে খবর, নবদ্বীপ পুরসভা স্থাপিত হয় ১৮৬৯ সালে। সেন রাজাদের আমলে (১১৫৯ থেকে ১২০৬ সাল পর্যন্ত) বাংলার রাজধানী শহর ছিল নবদ্বীপ। এই শহর ছিল প্রাচীন বাংলা তথা ভারতের শিক্ষাদানের একটি উল্লেখযোগ্য স্থান। নবদ্বীপ শহরকে বলা হয় বাংলার অক্সফোর্ড। এই শহরেই জন্মগ্রহণ করেন শ্রী চৈতন্য মহাপ্রভু। এখান থেকেই বৈষ্ণব ধর্ম বিকশিত হয়। নবদ্বীপ শহর ও মায়াপুর শহর জুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে চৈতন্য মহাপ্রভু ও বৈষ্ণব ধর্মের বিকাশের নানা নিদর্শন। এখানে বহু মানুষের সমাগম হয়। 

জনপ্রিয়

Back To Top