গৌতম চক্রবর্তী- মা ‌ডাইনি।‌ এমন অপবাদ দিয়েই তাঁকে নিজে এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে দিয়ে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল ছেলে ও বউমা–সহ ছেলের শ্বশুরবাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে। রবিবার রাতেই তাঁকে মারধর করে বাড়ি থেকে রাস্তায় বের করে দেওয়া হয়েছে বলে নির্যাতিতা মায়ের অভিযোগ। ‌রাস্তায় স্থান হয়েছে ওই ভাগ্যহীনা মায়ের। এমনই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে বিষ্ণুপুর থানার দক্ষিণ গোবিন্দপুর গ্রামে।
বড় ছেলে ও বউমা–সহ বউমার বাপের বাড়ির দু’‌জনের বিরুদ্ধে মালতী মাঝি পুলিশের কাছে তাঁকে মারধর ও ডাইনি অপবাদ দিয়ে বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ করেছেন। অভিযুক্তদের আটক করে জেরা করছে বিষ্ণুপুর থানার পুলিশ। মালতীদেবীর দুই ছেলে, দুই মেয়ে। মেয়েদের বিয়ে হয়ে গেছে। স্বামী নরেন্দ্র মাঝি ৯ বছর আগে মারা যান। তারপর থেকে পরিচারিকার কাজ করে সংসার চালান মালতীদেবী। দু’‌বছর আগে বড় ছেলের বিয়ে দেন। তারপর থেকেই বড় ছেলে ও বউমা মিলে তাঁর ওপর অত্যাচার শুরু করে বলে অভিযোগ। ইদানীং মালতীদেবীকে ডাইনি অপবাদ দেওয়া শুরু করেছিল ছেলে ও বউমা। আর সেই অপবাদ দিয়ে ছেলে তার শ্বশুরবাড়ির লোকের সাহায্যে মাকে মারধর করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। তাঁর চিৎকারে এলাকার মানুষ ছুটে আসেন। তাঁরাই পুলিশকে খবর দেন। মালতীদেবীর অভিযোগ শুনে বড় ছেলে ও বড় বউমা–সহ ছেলের শ্বশুরবাড়ির দু’‌জনকে আটক করে পুলিশ। স্থানীয়দের অভিযোগ, তাঁর দুই ছেলেই তাঁকে দেখে না। যদিও বড় ছেলে মিন্টু ও তাঁর স্ত্রী টুম্পা দু’‌জনেই তাঁদের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

রাস্তায় পড়ে মালতীদেবী। ছবি:‌ প্রতিবেদক‌

জনপ্রিয়

Back To Top