সুনীল চন্দ, রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ কেন্দ্রে কংগ্রেস প্রার্থী হচ্ছেন প্রিয়রঞ্জন–‌জায়া দীপা দাসমুন্সি। এমনটাই জানালেন উত্তর দিনাজপুর জেলা কংগ্রেস সভাপতি তথা রায়গঞ্জের বিধায়ক মোহিত সেনগুপ্ত। মোহিতবাবু এআইসিসির–‌ও সদস্য। শুক্রবার তিনি জানান, ‌সিপিএম নেতাদের এতটাই দুঃসাহস যে ওঁরা উত্তরবঙ্গে কংগ্রেসকে মাত্র একটি আসন ছাড়তে চান!‌ মহম্মদ সেলিম বলেন কিনা রায়গঞ্জে কংগ্রেস ক্ষয়িষ্ণু!‌ এসবের জবাব পাবেন সেলিম সাহেব। রায়গঞ্জে আমরা দীপা বউদিকে প্রার্থী করব। এই দাবি নিয়েই জেলা কংগ্রেসের এক প্রতিনিধি দল কলকাতা গিয়ে প্রদেশ সভাপতি সোমেন মিত্রের সঙ্গে দেখা করেছি। আমরা দাবি জানিয়ে এসেছি, রায়গঞ্জে কংগ্রেস লড়বে।  দীপা দাসমুন্সিকে প্রার্থী করার কথাও বলেছি। 
একইসঙ্গে মোহিত জানান, সিপিএমের সঙ্গে কংগ্রেসের জোট বা আসন রফার ৯৯ শতাংশ সম্ভাবনা নেই। বৃহস্পতিবার সিপিএম নেতাদের সঙ্গে জোট আলোচনা প্রায় ভেস্তে যাওয়ার পর সোমেন মিত্রের বাড়িতে প্রদেশ নির্বাচনী কমিটির বৈঠকে রাজ্যের ৪২ আসনেই প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রার্থী তালিকা–সহ সিপিএম নেতাদের সঙ্গে জোট আলোচনার বিষয়বস্তু পাঠিয়েও দেওয়া হয়েছে হাইকম্যান্ডের কাছে। কেন জোট বা আসন রফা নয়, তা বিস্তারিত জানাবেন প্রদেশ সভাপতি বা হাইকম্যান্ড। তবে এটুকু বলতে পারি সিপিএমের এতটাই দুঃসাহস যে ওঁরা কংগ্রেসকে রাজ্যে গতবারের জেতা ৪টি আসন–‌সহ মোট ১১টি আসন ছাড়তে চায়। এটি ওদের মাত্রাতিরিক্ত দুঃসাহস। মোহিতবাবুর সিপিএম নিয়ে মোহভঙ্গে তৃণমূল নেতাদের বক্তব্য, এই মোহিতবাবুই সিপিএমের হাত ধরে বিধানসভা ভোটে জিতেছেন। মোহিতবাবু–‌সহ জেলা কংগ্রেস নেতাদের সিপিএম প্রীতির কারণেই প্রকৃত কংগ্রেসিরা ক্রমশ দূরে সরে গেছেন সুবিধাবাদী মোহিতবাবুকে ছেড়ে। 

জনপ্রিয়

Back To Top