আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মিলন মেলা হচ্ছে না। ফলে মন ভারাক্রান্ত দুই প্রতিবেশী দেশের। ভারত–বাংলাদেশ। হ্যাঁ, লোকসভা নির্বাচনের জেরে এই বছর জলপাইগুড়ি জেলার ভারত–বাংলাদেশ সীমান্তের মিলন মেলা হচ্ছে না। প্রত্যেক বছর সংক্রান্তির দিন ভারত–বাংলাদেশ সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়ার দু’‌পাশে হাজার হাজার মানুষ ভিড় করেন ভাব বিনিময় এবং মিলিত হওয়ার জন্য। কিন্তু জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রে আগামী ১৮ এপ্রিল ভোট হওয়ায় মিলন মেলার অনুমতি দিল না প্রশাসন। তাই পয়লা বৈশাখে মন ভারাক্রান্ত দুই দেশের জনগণের।
জানা গিয়েছে, রাজগঞ্জ ব্লকের গাডরা, ভোলাপাড়া, শুখানি, খালপাড়া এলাকায় প্রত্যেক বছর মিলন মেলা হয়। সীমান্তে গিয়ে দুই দেশের মানুষ তাঁদের আত্মীয়দের সঙ্গে দেখা করেন। তাঁরা একে–অপরকে উপহারও দিয়ে থাকেন। এমনকী বাংলাদেশের ইলিশও বিক্রি হয়ে থাকে। দুই দেশের মানুষের মিলিত হওয়ার সময় আইনশৃঙ্খলার অবনতি হতে পারে। তাই বিশাল সংখ্যক বিএসএফ জওয়ান মোতায়েন করা হয়েছে। ফলে সীমান্ত পাড়ে আর আসা হচ্ছে না তাঁদের।
প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দেশে লোকসভা নির্বাচনের কারণে সীমান্তে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা জওয়ানদের ভোটের ডিউটির জন্য ভিন জেলা এবং ভিন রাজ্যে পাঠানো হয়েছে। এই অবস্থায় ভারত–বাংলাদেশ সীমান্তে বিএসএফ জওয়ানদের সংখ্যা কম। তাই সংক্রান্তির দিন ভারত–বাংলাদেশের মধ্যে মিলন মেলার অনুমতি দেওয়া হলে নিরাপত্তার একটা বড় সমস্যা হতে পারে। তাই মিলন মেলা স্থগিত রাখা হয়েছে।‌‌‌

জনপ্রিয়

Back To Top