দীপঙ্কর নন্দী- বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ফের জানিয়ে দিলেন, ‘‌বাংলায় নাগরিকপঞ্জি হবে না। আমার ওপর ভরসা রাখুন, বিজেপি নেতাদের ছড়ানো গুজবে কান দেবেন না। ভয় পাবেন না।’‌ 
নেতাজি ইনডোরে সোমবার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সভার মঞ্চে ভাষণ দেন মমতা। বলেন, ‘‌বাংলায় ইতিমধ্যে এনআরসি–‌আতঙ্কে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। লজ্জা ঢাকার জায়গা নেই। আমি সত্যিই দুঃখিত। মূল্যবান জীবন নষ্ট করবেন না।‌ বারবার বলছি, বাংলায় এনআরসি করতে দেব না। এখানে নাগরিকপঞ্জি করতে হলে রাজ্য প্রশাসনের সাহায্য দরকার হবে। আমরা সাহায্য করব না।’‌
মঞ্চ থেকে মমতা এদিন মিডিয়ার একাংশের কড়া সমালোচনা করে বলেন, ‘‌কয়েকটি টিভি চ্যানেলে ও কয়েকটি সংবাদপত্রে নাগরিকপঞ্জি নিয়ে উত্তেজনা ছড়ানো হচ্ছে। বিজেপি–‌র নেতারা মিথ্যে কথা বলছেন। যে সব টিভি চ্যানেল নাগরিকপঞ্জি নিয়ে অপপ্রচার করছে, সেই সব টিভি চ্যানেল দেখবেন না।’‌ বিজেপি নেতাদের আক্রমণ করে মমতা বলেন, ‘‌ওরা বলছে, ’‌৭১ থেকে জন্মের কাগজপত্র দেখাতে হবে। বন্যায় তো অনেকের কাগজপত্র হারিয়ে গেছে। যাঁদের সব হারিয়েছে, তাঁরা এফআইআর করে রাখুন। আমার মায়ের জন্ম সার্টিফিকেট আমি দেখাতে পারব না। আমি তো মাটির ঘরে জন্মেছি। গ্রামে–‌গঞ্জে বিজেপি নেতারা অপপ্রচার করছে। ভোটার তালিকায় নাম আছে কিনা সেটা দেখুন। প্রয়োজনীয় নথিপত্র জমা দিন। নাম তোলার ক্ষেত্রে কোনওরকম বাধা পেলে ‘‌দিদিকে বলো’‌–‌তে অভিযোগ করুন। যারা বাধা দেবে তাদের ঘাড় ধাক্কা দিয়ে ভোটার তালিকায় নাম তুলিয়ে দেব।’‌
বিজেপি–‌কে কড়া আক্রমণ করে মমতা বলেন, ‘‌নাগরিকপঞ্জির নাম করে হিন্দু–‌মুসলমানদের মধ্যে ভাগাভাগি করা হচ্ছে। শুধু বাংলাতে কেন, কোনও রাজ্যেই নাগরিকপঞ্জি হবে না। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী ওদের রাজ্যে নাগরিকপঞ্জি করতে দেবেন না বলে জানিয়েছেন। বাংলার কথা বলছেন না কেন?‌ ত্রিপুরাতে হলে ওই বিজেপি–‌র মুখ্যমন্ত্রীর নাম বাদ চলে যাবে। বিজেপি নেতারা কে কী বলছেন, তাতে কান দেবেন না। ওদের সব শেখানো হচ্ছে। এখন এই জমানা চলছে। সন্ত্রাসের দানবীয় তাণ্ডব চলছে।’‌ ঐক্যবদ্ধভাবে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে মমতা আহ্বান জানান। বলেন, ‘‌যারা সাহসী হয়, জয়ী হয় তারাই। বরাবরই আমি দুঃসাহসী। এটাই আমার সমস্যা। সাহস যদি থাকে, তবে এগিয়ে আসবেন, না থাকলে আমাকে পাবেন না। আপনাদের সঙ্গে আমি আছি। লড়াই কিন্তু শুরু হয়ে গেছে।‌’‌
নাগরিকপঞ্জি নিয়ে প্রথম থেকেই সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সম্প্রতি তিনি দিল্লিতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে দেখা করে এই বিষয়টি জানিয়ে এসেছেন। দিল্লি যাওয়ার আগে, তাঁর নেতৃত্বে নাগরিকপঞ্জির বিরুদ্ধে তৃণমূল সিঁথির মোড় থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত মহা মিছিল করে। মিছিলের পর সভা করে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘‌বিজেপি–‌র নেতারা বাংলায় এসে বড় বড় কথা বলছেন। বাংলার কৃষ্টি ও সংস্কৃতিকে নষ্ট করতে চাইছেন। এখানে সব ধর্মের মানুষ শান্তিতে বাস করছে। নাগরিকপঞ্জির নাম করে বাংলাকে ভাগ করতে চাইছে ওরা। বাংলা যেমন আছে তেমন থাকবে। কারও গায়ে হাত দিতে দেব না।’‌ বিজেপি–‌কে হুমকি দিয়ে মমতা বলেছেন, ‘‌মিথ্যেবাদীদের কথা বিশ্বাস না করাই ভাল। ওরা সাম্প্রদায়িক হাঙ্গামা বাধাতে চাইছে। বাংলার মানুষ  উপযুক্ত জবাব দেবে। মনীষীদের ওরা অপমান করছে। ইতিহাসকে পাল্টে দিচ্ছে। এর বিরুদ্ধে আমাদের আন্দোলন চলবে। বাংলা থেকেই প্রতিবাদের  ঝড় উঠবে।’‌‌‌‌

নেতাজি ইনডোরে মমতা ব্যানার্জি। সোমবার। ছবি: অভিজিৎ মণ্ডল

জনপ্রিয়

Back To Top