আজকালের প্রতিবেদন: ‘‌বাংলার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য’‌ থিমে মণ্ডপ তৈরি করে রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছে বারাসতের কালীপুজোর ঐতিহ্যবাহী বারাসত কেএনসি রেজিমেন্ট। ৬০তম বর্ষে পাট, পাটকাঠি–সহ বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে নিখুঁত কারুকার্যের মাধ্যমে শিল্পীরা পুজোমণ্ডপ তৈরি করছেন। পুজো কমিটির কর্ণধার তথা বারাসত পুরসভার উপপুরপ্রধান অশনি মুখার্জি জানান, তাঁদের মণ্ডপে এলে দর্শনার্থীরা দেখতে পাবেন বাংলার বিভিন্ন সংস্কৃতি। একসময় যখন সেভাবে মোটরযান ছিল না তখন মানুষ যাতায়াত করতেন পালকি, গরুর গাড়ি, হাতির পিঠে চড়েই। মূলত জমিদারেরাই পালকি চড়তেন। কিন্তু বর্তমান প্রজন্ম এখন সে সব দিনের কথা প্রায় ভুলতে বসেছে। সেই কারণেই প্রাচীন সংস্কৃতির সেইসব দিক তুলে ধরতে তাঁরা এবার নতুনত্বের থিমে পুজো করছেন বলেও জানান অশনিবাবু। মণ্ডপে দর্শনার্থীরা এলেই এখানে দেখতে পাবেন বিভিন্ন ধরনের মূর্তি ও কলকা। ঘোড়া, পুতুল, ঘটি— থাকবে সবই। মূল মণ্ডপে থাকবে হাতির মূর্তিও। মণ্ডপের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কেএনসি রোডে থাকছে আলোকসজ্জা দিয়ে তৈরি ওভারহেড গেট। এবারও দর্শনার্থীরা যাতে কেএনসি ক্লাবের মণ্ডপে সুষ্ঠুভাবে মাতৃপ্রতিমা দর্শন করতে পারেন তার জন্য পুজো কমিটির পক্ষ থেকে স্বেচ্ছাসেবকও রাখা হচ্ছে। প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বারাসত থানা সংলগ্ন এই পুজোমণ্ডপে প্রতিবারই রেকর্ড সংখ্যক মানুষের ভিড় হওয়ায় এখানে অতিরিক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে এবার।

জনপ্রিয়

Back To Top