আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ পশ্চিম মেদিনীপুরের কেশপুরে দফায় দফায় ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে উত্তেজনা সৃষ্টি করার অভিযোগ উঠল। অভিযোগ, কেশপুরের দোগাছিয়ার একটি বুথে ছাপ্পা ভোট চলার দাবিতে সেখানে গিয়ে চেঁচামেচি জোড়েন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। এরপরই সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দারা ভারতীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করে ইটবৃষ্টি করা হয়। গন্ডগোলের মাঝে পড়ে সংবাদমাধ্যমের একাধিক গাড়িও ভাঙচুর করা হয়েছে। জনতার ইটের আঘাতে মাথা ফেটে গিয়েছে ভারতীর নিরাপত্তারক্ষী, সিআইএসএফ–এর এক জওয়ানের। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
একইভাবে কেশপুরেরই চাঁদখালির একটি বুথেও ভারতীর বিরুদ্ধে  নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ না হয়ে জোর করে বুথের ভিতর নিজের দলের এজেন্ট বসানোর অভিযোগ ওঠে। বাধা দিলে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে ধাক্কাধাক্কির অভিযোগও উঠেছে বিজেপি প্রার্থীর বিরুদ্ধে। তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান গ্রামবাসীরা। কেশপুরেরই পিকুরদার ১৩৯ নম্বর বুথের ভিতরে তাঁকে ভিডিওগ্রাফি করতেও দেখা যায়। বুথের ভিতর ভিডিওগ্রাফির জন্য নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগে ভারতী ঘোষের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করে নির্বাচন কমিশন জেলা প্রশাসনকে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দিয়েছে। ‌ওই বুথের প্রিসাইডিং অফিসারকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। 
‌‌এছাড়া, বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে সশস্ত্র দেহরক্ষী নিয়ে ঢোকায় ভারতীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের জন্য জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। সেই মতো এফআইআর দায়ের হয়েছে। বিকেলের দিকে কেশপুরের ঝেটলায় বুথে যাওয়াক চেষ্টা করলে তাঁকে ঘিরে আবারও বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁর এবং তাঁর দেহরক্ষী মিলিয়ে মোট তিনটি গাড়ি আটকে দেওয়া হয়। হয় বোমাবাজি। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় বিশাল পুলিস বাহিনী এবং কমব্যাট ফোর্স। 

জনপ্রিয়

Back To Top