আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ক্যানিংয়ের পর এবার বেআইনি অস্ত্র কারখানার হদিশ মিলল উত্তর চব্বিশ পরগণার বসিরহাটের মিনাখাঁয়। বুধবার মিনাখাঁ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে মহম্মদ সামসের আলম ও মহম্মদ ফিরোজকে। ঘটনাস্থল থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে ২টি ওয়ান শাটার পিস্তল, ৪ টি নির্মীয়মাণ পিস্তল ও প্রচুর অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যান্যদের খোঁজে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 
জানা গিয়েছে, একটি মামলার তদন্তে নেমে বুধবার দুপুরে তারাতলা টাঁকশালের সামনে থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে এন্টালি থানার পুলিশ। ওই ব্যক্তির নাম সফিকুল গাজি ওরফে মির্জা। সে উত্তর ২৪ পরগণার হাবরার বাসিন্দা। পুলিশ সূত্রে খবর, তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই মিনাখাঁর বেআইনি অস্ত্র কারখানাটির হদিশ পান তদন্তকারীরা। এরপর সেই তথ্যের ভিত্তিতে মিনাখাঁ থানার পুলিশের সহযোগিতায় বুধবার রাতেই এলাকায় হানা দেয় কলকাতা পুলিশের তদন্তকারী আধিকারিকরা। মিনাখাঁয় একটি ভেড়ির মধ্যে হদিশ মেলে বেআইনি অস্ত্র কারখানার। সেখান থেকেই উদ্ধার হয়েছে ২টি ওয়ান শাটার পিস্তল, ৪ টি নির্মীয়মাণ পিস্তল ও প্রচুর অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম।
ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ওই কারখানা থেকেই মহম্মদ সামসের আলম ও মহম্মদ ফিরোজকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হবে তাদের। জানা গিয়েছে, ধৃতরা বিহারের বাসিন্দা। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, এই কারখানার সঙ্গে মুঙ্গেরের যোগ রয়েছে। কিন্তু কবে থেকে ওই কারখানায় অস্ত্র নির্মাণ চলছে, কোথায় পাচার হত অস্ত্র, আর কারা জড়িত রয়েছে এই অস্ত্র কারখানার সঙ্গে তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

জনপ্রিয়

Back To Top