আবির রায়, দুর্গাপুর: শরীরে করোনাভাইরাসের টিকা পরীক্ষার জন্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) থেকে ডাক পেলেন কাঁকসার যুবক চিরঞ্জিত ধীবর। চিঠি পেলেই ভুবনেশ্বরের হাসপাতালে পৌঁছে যাবেন। দু’‌দিন আগেই আইসিএমআরের বিজ্ঞানী সমীরণ পন্ডা টেলিফোনে এই খবর জানান। 
ইস্পাতনগরী শিবাজি রোডের বাসিন্দা প্রাথমিক স্কুলশিক্ষক চিরঞ্জিত ২৭ এপ্রিল তঁার শরীরে টিকা পরীক্ষার আগ্রহ জানিয়ে আবেদন জানান। ইংরেজিতে স্নাতকোত্তর বছর তিরিশের ওই যুবককে রাজ্য থেকে কোভিড–১৯ ভ্যাকসিন পরীক্ষার জন্য বাছাই করা হয়েছে। দেশের ১২টি পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে ওডিশার ভুবনেশ্বরের কেন্দ্র থেকে চিকিৎসক বেঙ্কট রাও তাঁকে আশ্বস্ত করেছেন। চিরঞ্জিত বলেন, ‘‌চিঠি পাওয়ার পরে আমি রাজ্য সরকারের কাছে ভুবনেশ্বর যাতায়াতের ব্যবস্থা চেয়ে আবেদন করব। সাড়া না পেলে নিজের মোটরবাইকেই বেরিয়ে যাব ভুবনেশ্বরের পথে। আমাকে এবার ভ্যাকসিন পরীক্ষায় নামতেই হবে। করোনা অতিমারীর প্রতিষেধক আবিষ্কারে নিজেকে উৎসর্গ করতে পেরে আমি খুব খুশি।’‌
পরপর ৮ বার স্বাস্থ্যপরীক্ষা হবে। তাই চিঠি পাওয়ার দু–তিন দিন পরেই বেরিয়ে যেতে হবে। তার পরেই শারীরিক পরীক্ষা চালু হয়ে যাবে। বাবা তপন ধীবর ও মা প্রতিমাদেবীর আশা, ছেলে দেশের জন্য কিছু করুক। তাই কোনও বাধা দেননি। চিরঞ্জিত বলেন, ‘‌মা–‌বাবা আমার কাজে সায় দিয়েছেন।’‌ এ রাজ্যের ৫০ জন আবেদনকারীর মধ্যে চিরঞ্জিতকে প্রথম ডাকা হয়েছে। বেজায় খুশি কাঁকসার মানিকআড়া অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্কুলশিক্ষকেরা। স্কুল থেকে যাবতীয় সাহায্য করতে তৈরি। 

জনপ্রিয়

Back To Top