প্রিয়দর্শী বন্দ্যোপাধ্যায়: কোনওমতেই প্রধান শিক্ষককে স্কুল থেকে অন্যত্র চলে যেতে দেবে না পড়ুয়ারা। এমনই দাবি নিয়ে এবার বিক্ষোভ–আন্দোলন ও প্রতীকী অনশনে নামল স্কুলছাত্ররা। আন্দোলনে সামিল হলেন অভিভাবকরাও। শুক্রবার এমন ঘটনাই ঘটল হাওড়া জেলা স্কুলে। প্রিয় প্রধান শিক্ষককে এই স্কুলেই রেখে দেওয়ার জন্য পড়ুয়ারা প্রয়োজনে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জির দ্বারস্থও হতে পারে। এ ব্যাপারে তারা এদিনই জেলাশাসকের কাছে লিখিত আবেদন জানিয়েছে। সোমবার অভিভাবকদের সঙ্গে এই আর্জি নিয়ে নবান্নে গিয়ে দরবার করবে বলে পড়ুয়ারা জানায়।
বৃহস্পতিবারই শিক্ষা দপ্তর থেকে এই স্কুলের প্রধান শিক্ষক শুভজিৎ দত্তের বদলির নির্দেশ আসে। তাঁকে শুক্রবারই এই স্কুল থেকে রিলিজ নিয়ে হিন্দু স্কুলের প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগ দিতে বলা হয়। এদিন স্কুলে এসে এ কথা জানতে পেরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে ছাত্রেরা। শুরু করে বিক্ষোভ। পঞ্চম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্ররা প্ল্যাকার্ড হাতে স্কুলের মধ্যে অনশন শুরু করে দেয়। দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র তমাল দাস বলে, ‘স্যার দেড় বছর হল আমাদের স্কুলে এসেছেন। কিন্তু এই ক’‌দিনেই তিনি প্রতিটি ছাত্রের আপনজন হয়ে উঠেছিলেন। আমরা কিছুতেই তাঁকে যেতে দেব না। সোমবারই আমরা এ ব্যাপারে নবান্নে যাব।’ ছাত্রদের এই আবেদনে ভেঙে পড়েন প্রধান শিক্ষক শুভজিৎবাবু। তাঁর চোখও জলে ঝাপসা হয়ে আসে। তিনি বলেন, ‘ছাত্রদের ছেড়ে যেতে আমারও মন চাইছে না। কিন্তু সরকারি নির্দেশ তো মানতেই হবে। এটাই আমি ওদের বুঝিয়েছি।’ এদিন বিকেলেই শুভজিৎবাবু হাওড়া জেলা স্কুল থেকে রিলিজ নিয়ে নেন।

প্রধান শিক্ষককে ঘিরে ছাত্রেরা। হাওড়া জেলা স্কুলে। শুক্রবার। ছবি:‌ কৌশিক কোলে

জনপ্রিয়

Back To Top