Howrah Police: জোর করে ডিউটিতে পাঠানো হয়েছিল, মৃত্যুর আগে আহত সিভিক ভলান্টিয়ারের বক্তব্য ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে হাওড়া পুলিশ

আজকাল ওয়েবডেস্ক: অস্বস্তিতে হাওড়া গ্রামীণ পুলিশ।

মৃত্যুর আগে হাওড়া গ্রামীণ পুলিশে কর্মরত সিভিক ভলান্টিয়ার অরিন্দম বিশ্বাসের (২৬) বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হতেই সমালোচনার ঝড় উঠেছে পুলিশের বিভিন্ন মহলে। ওই ভিডিও বক্তব্যে অরিন্দম দাবি করেছেন, তাঁকে জোর জবরদস্তি করে ঘটনাস্থলে ডিউটি করতে পাঠানো হয়েছিল। উল্লেখ্য, বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর গভীররাতে মুম্বাই রোডে (১৬ নম্বর জাতীয় সড়ক) রাণীহাটি মোড়ের কাছে মোটর ভেহিক্যালের তরফে গাড়ি চেকিংয়ের সময় পথ দুর্ঘটনা ঘটে। দূর্ঘটনায় প্রাণ হারান মোটর ভেহিক্যালের ইন্সপেক্টর উজ্জল জানা (৪৭), সিভিক ভলান্টিয়ার অরিন্দম বিশ্বাস এবং ঘাতক লড়ির চালক আখতার আনসারি (৩৫)।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পরীক্ষার জন্য মালবোঝাই একটি দ্রুতগামী লরি থামাতে গেলে চালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এই দু'জনকে ধাক্কা মেরে নিজেও দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে বৃহস্পতিবার ভোররাতে তিনজনেরই মৃত্যু ঘটে। দুর্ঘটনায় আহত অরিন্দম ঘটনাস্থলেই কাতরাতে কাতরাতে জেলা পুলিশের এক আধিকারিককে দায়ী করে বলেন যেখানে ঘটনাটি ঘটেছে সেখানে আদৌ তাঁর ডিউটি করার কথা না থাকলেও জোর করে তাঁকে পাঠানো হয়েছে। গোটা বিষয়টি নিয়ে হাওড়া (গ্রামীণ) পুলিশের সুপার স্বাতী ভাঙ্গালিয়া বলেন, 'ঘটনার দিন রাতে চেকিং করার জন্য যখন মোটর ভেহিক্যালের তরফে আমাদের কাছে পুলিশকর্মী চাওয়া হয় তখন ওই ভলান্টিয়ার ডিউটিতে ছিলেন। তাই তাঁকে পাঠানো হয়েছিল।'

আকর্ষণীয় খবর