বিজয়প্রকাশ দাস,পূর্ব বর্ধমান: মেয়ের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে এবার জেলাশাসকের কাছে স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদন জানালেন এক অবসরপ্রাপ্ত বৃদ্ধা বিধবা শিক্ষাকর্মী। ঘটনাটি পূর্ব বর্ধমান শহরের। অভিযোগ, তাঁর মেয়ে গত ৪ জানুয়ারি বৃদ্ধা লক্ষ্মীরানি কর্মকারকে ধোগড়াশহিদ শ্মশানঘাট রোডের নিজের বাড়ি থেকে মারধর করে বের করে দিয়েছে। তারপর থেকে তিনি স্টেশনে, বাসস্ট্যান্ডে, লোকের বাড়ির বারান্দায় ভবঘুরের মতো এক শাড়িতে দিন কাটাচ্ছেন।
অসহায় বিধবা বৃদ্ধা লক্ষ্মীরানি কর্মকার জেলাশাসকের কাছে একটি আবেদন করে জানিয়েছেন, আমার মেয়ে মালা কর্মকার গত ৪ জানুয়ারি আমাকে জোর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। বর্তমানে আমি রাস্তায় দিন কাটাচ্ছি। আমি একজন অসুস্থ, গৃহহীন, অসহায় বৃদ্ধা মহিলা। আমি গত ২২ ফেব্রুয়ারি সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করি। কিন্তু তারা কোনও রকম ব্যবস্থা না নেওয়ায় আপনার শরণাপন্ন হয়েছি। আমাকে যদি আমার বাড়িতে ঢোকার ব্যবস্থা ও আমার মেয়েকে বাড়ি থেকে বের করার ব্যবস্থা না করেন, তাহলে আমাকে স্বেচ্ছামৃত্যুর অনুমতি দিয়ে বাধিত করবেন। জেলা প্রশাসনের কাছে তাঁর এই স্বেচ্ছামৃত্যুর আবেদনের কথা প্রশাসনিক মহলে ও শহর পূর্ব বর্ধমানে ছড়িয়ে পড়েছে। এই প্রসঙ্গে জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, তিনি যাতে নিজের বাড়িতেই থাকতে পারেন, সেইজন্য সিনিয়র সিটিজেন আইনানুসারে শীঘ্রই একটা ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

লক্ষ্মীরানি কর্মকার। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top