যজ্ঞেশ্বর জানা,কোলাঘাট: বেপরোয়া ট্রাকের ধাক্কায় উড়ে গেল মারুতি ভ্যানের ছাদ। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ ৬ নম্বর জাতীয় সড়কে কোলাঘাটের পানশিলা ব্রিজের কাছে ঘটা মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে শম্পা রায় চক্রবর্তী (৪৫) নামের এক স্কুল শিক্ষিকার। গুরুতর আহত অবস্থায় তমলুক জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দুর্ঘটনাগ্রস্ত মারুতির চালক। ঘটনার পর দীর্ঘক্ষণ যানজট তৈরি হয় জাতীয় সড়কে। খবর পেয়ে পুলিশ এসে স্বাভাবিক করে পরিস্থিতি। 
কোলাঘাট থানার ওসি রাজকুমার দেবনাথ বলেন, ‘‌দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ঘাতক গাড়িটির খোঁজ চলছে। মৃত স্কুল শিক্ষিকার দেহ ময়নাতদন্তের জন্য তমলুক জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।’‌ জানা গেছে, শিক্ষিকা শম্পাদেবী মেচেদার শান্তিপুরের বিবেকানন্দ পল্লীর বাসিন্দা। স্থানীয় নিকাশি হাইস্কুলের বাংলার শিক্ষিকা ছিলেন তিনি। এদিন সকালে গাড়িতে করে কোলাঘাটের একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলে ছেলেকে ছাড়তে গিয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে ফিরছিলেন বাড়ি। পানশিলা ব্রিজের কাছে সে সময় পিছন দিক থেকে আসা তীব্র গতির লরিটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ধাক্কা মারে মারুতি ভ্যানের পিছনে। উড়ে যায় মারুতির ছাদ। গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করেন শিক্ষিকা এবং মারুতির চালককে। ভর্তি করা হয় স্থানীয় বেসরকারি হাসপাতালে। সেখানেই শম্পাদেবীকে মৃত বলে জানান চিকিৎসক। তমলুক হাসপাতালে রেফার করা হয় চালককে।

দুর্ঘটনাগ্রস্ত গাড়িটি। ছবি: প্রতিবেদক‌

জনপ্রিয়

Back To Top