আজকালের প্রতিবেদন- কটু মন্তব্যের জন্য মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষকে শোকজ করল নির্বাচন কমিশন। শনিবার খড়্গপুরে ফ্লেক্স খোলা নিয়ে তিনি কটু মন্তব্য করেন। সেই মন্তব্য কমিশনের মিডিয়া ওয়াচ সেল খঁুটিয়ে দেখে এবং তারপর তঁাকে শোকজের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পাশাপাশি সোমবার দিল্লির নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ রাজ্যের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফার ভোটের বিষয়ে পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করে। রাজ্যের তরফে এই কনফারেন্সে ছিলেন রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক ড.‌ আরিজ আফতাব–সহ অন্য আধিকারিকরা। দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফার ভোটে নির্বাচন কমিশন সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে। ভোটারদের মনোবল বাড়ানোর জন্য প্রচুর কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকছে। সিসিটিভি, ভিডিওগ্রাফি, রেডিও ফ্লাইং স্কোয়াড, কুইক রেসপন্স টিম এবং ক্যামেরা লাগানো গাড়ি বিভিন্ন জায়গায় থাকবে। মাইক্রো অবসার্ভার এবং প্রিআইডিং অফিসার ছাড়া কেউ মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না। তঁাদের ফোন ‘‌সাইলেন্ট মোড’‌–এ রাখতে হবে। ভোটদান কক্ষে ভোটাররা মোবাইল ফোন নিয়ে ঢুকতে পারবেন না। বুথের ১০০ মিটারের মধ্যে ভোটার ছাড়া কেউ থাকতে পারবেন না। একসঙ্গে তিন–চারজন বাইকে আসতেও পারবে না। করা যাবে না কোনওরকম বাইক মিছিলও। অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট করাতে নির্বাচন কমিশন বদ্ধপরিকর। কোনও ভোটার যাতে বুথে গিয়ে ভোট না দিয়ে ফিরে আসেন, সেটা কমিশন বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়েছেন। উল্লেখ্য, দ্বিতীয় দফার ভোট হবে ১৮ এপ্রিল। দার্জিলিং, রায়গঞ্জ এবং জলপাইগুড়িতে।
বাংলাদেশের অভিনেত্রী ফিরদৌস তৃণমূলের প্রার্থীর হয়ে রায়গঞ্জে প্রচার করেছেন। তিনি কি নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন?‌ জবাবে অতিরিক্ত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক বলেন, ‘‌মডেল কোড অফ কন্ডাক্টে এ ধরনের কোনও বিধিনিষেধ নেই। তবে কেউ যদি অভিযোগ করেন, তবে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’‌ 

জনপ্রিয়

Back To Top