আজকালের প্রতিবেদন- পরিশুদ্ধ পানীয় জল দিতে বীরভূম, বাঁকুড়া, ২ দিনাজপুর, পুরুলিয়া, মালদা, দক্ষিণ ২৪ পরগনার ৪৩টি ফ্লোরাইড আক্রান্ত ব্লকে রাজ্য সরকার ১৫৮০ কোটি টাকার পরিকল্পনা নিয়েছে। আর্সেনিক আক্রান্ত এলাকাতেও রাজ্য সরকার পরিকল্পনা নিয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার আর্সেনিক–‌ফ্লোরাইড আক্রান্ত এলাকাগুলিতে পরিশুদ্ধ পানীয় জল দেওয়ার একটি ‘‌জাতীয় মহা পরিকল্পনা’‌ নিয়েছে। ২০২০ সালের মার্চ মাসের মধ্যে এ কাজ শেষ করতে হবে। কেন্দ্র–রাজ্য ৫০ শতাংশ করে অর্থ দেবে।‌ সোমবার বিধানসভায় জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি এ কথা জানান। 
এদিন পঞ্চায়েত, গ্রামোন্নয়ন ও জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের বাজেট নিয়ে সুব্রত মুখার্জি বলেন, ‘‌গ্রামীণ অর্থনীতি ও সমাজনীতিতে আমাদের সরকার অনেকটাই এগোতে পেরেছে। এর জন্য কৃতজ্ঞতা জানাই মুখ্যমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীকে। রাজ্য স্বচ্ছভাবে মানুষকে সঙ্গে নিয়ে গ্রামের উন্নয়নে কাজ করছে। আমাদের রাজ্যে যে সম্পদ আছে, সেই সম্পদকে মানুষ ব্যবহার করছে। তার মূল কারণ সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প ও পরিকল্পনা বাস্তবায়ন।’‌ ১০০ দিনের কাজ থেকে শুরু করে বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা তিনি তুলে ধরেন। বলেন, ‘‌এখন নারকেল গাছ থেকে ডাব পাড়ার লোক পাওয়া যায় না। শহরের খেটেখাওয়া লোক, শ্রমিকরা ১০০ দিনের কাজে যোগ দিয়েছেন। রাজ্য সরকারই এর জন্য টাকা দিচ্ছে। এখন দৈনিক ১৮০ টাকা করে পাওয়া যায়।’‌ পঞ্চায়েত মন্ত্রী জানান, প্রধানরা পাড়ায় পাড়ায় বৈঠক করুন মানুষের সঙ্গে। মানুষের দাবিদাওয়া শুনুন। কোথায় রাস্তা দরকার, জল দরকার, সেতু দরকার রাজ্য সরকারকে জানান, সরকার সব করে দেবে। বামফ্রন্ট সরকারকে চলে যেতে হয়েছে পঞ্চায়েতের জন্য। পঞ্চায়েতকে কেউ দলীয় স্বার্থে ব্যবহার করলে ইতিহাস তাকে ক্ষমা করবে না। এই ৭ বছরে প্রচুর রাস্তাঘাট হয়েছে। পানীয় জল গেছে পুরুলিয়া, বাঁকুড়ার মতো প্রত্যন্ত জায়গায়। ১০টা দপ্তরের মন্ত্রীদের সঙ্গে সমন্বয় রেখে পঞ্চায়েত দপ্তর কাজ করে চলেছে।’‌

জনপ্রিয়

Back To Top