বিভাস ভট্টাচার্য: গরম থেকে বাঁচতে এবার রাজ্য পুলিশের কুকুরদের জন্য আনা হবে বিশেষ জ্যাকেট। এই জ্যাকেট পরালে গরম থেকে অনেকটাই রক্ষা পাবে সারমেয় বাহিনী। নির্বাচনের পরেই এই জ্যাকেট কেনার বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে জানা গেছে ব্যারাকপুর লাটবাগানের পুলিশ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র সূত্রে। 
এক আধিকারিক বলেন, ‘‌আমাদের এখানে আপাতত ৪টি কুকুর আছে। তার মধ্যে ২টি বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের। যেগুলির দেখাশোনাও আমরা করি। পরীক্ষামূলকভাবে প্রথম পর্যায়ে এই বিশেষ জ্যাকেট চার থেকে পঁাচটি কেনার কথা ভাবা হচ্ছে। এরপর এর কার্যকারিতা দেখে ধীরে ধীরে রাজ্য পুলিশের সমস্ত কুকুরের জন্যই এই জ্যাকেট কেনার ব্যাপারে এগোনো হবে।’‌ 
কী ধরনের জ্যাকেট?‌ ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, বিশেষভাবে তৈরি এই জ্যাকেটগুলিকে বলা হয় ‘‌কুলিং জ্যাকেট’‌। যা একটি ‘‌আইস বক্স’‌–এর মধ্যে রাখতে হয়। প্রয়োজনে এই জ্যাকেট কুকুরের গায়ে পরিয়ে দিতে হয়। তঁার কথায়, ‘‌বাক্স থেকে বের করার পর জ্যাকেটটি ১ ঘণ্টার মতো ঠান্ডা থাকে। যা কুকুরের শরীর ঠান্ডা করে দেয়।’‌ শীতকালে ঠান্ডা থেকে বঁাচাতে কুকুরদের সাধারণ জ্যাকেট পরিয়ে দেওয়া হয়। মেঝেতে শুলে ঠান্ডা লাগতে পারে। ফলে তাদের জন্য চৌকি বা কাঠের পাটাতনের বন্দোবস্ত করে দেওয়া হয়। 
রাজ্য পুলিশ সূত্রের খবর, আপাতত রাজ্য পুলিশের ১৯টি ‘‌ডগ স্কোয়াড’‌ আছে। যেখানে এই মুহূর্তে কুকুরের সংখ্যা ৫৩। সারা বছর অন্যান্য কাজ ছাড়াও নির্বাচনের সময় এই কুকুররা একটু বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়ে। কারণ, বিভিন্ন নেতা বা মন্ত্রীর সভা উপলক্ষে তাদের দিয়ে নিরাপত্তার দিকগুলি পরীক্ষা করে দেখা হয়। ব্যস্ততার জন্য পরিশ্রমও বাড়ে। ফলে গরমের মধ্যে শরীর সুস্থ রাখার জন্য কুকুরদের অন্যান্য খাবারের সঙ্গে নিয়মিত দই খাওয়ানো হয়। 
ইতিমধ্যেই কলকাতা পুলিশ তাদের কুকুরদের জন্য গত বছর দুটি এই ধরনের জ্যাকেট কিনেছে। যা প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করা হয়।

জনপ্রিয়

Back To Top