যজ্ঞেশ্বর জানা,দিঘা: পাঁচ একর জমির ওপর দিঘায় আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। এখন জোরকদমে চলছে শেষ মুহূর্তের কাজ। এত তৎপরতার কারণ হল, সবকিছু ঠিক থাকলে এ মাসেই কনভেনশন সেন্টারের দ্বারোদ্ঘাটন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। দিঘার সমুদ্র সৈকতকে বিশ্বমানের করে গড়ে তোলা মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্ন। তিনি সেকথা প্রকাশ্যে ঘোষণা করেছিলেন। সৈকতের পর্যটনকে পুঁজি করেই কর্পোরেট দুনিয়াকেও কাছে টানতে মরিয়া তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর পরিকল্পনাতেই ৭০ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা ব্যয়ে এই আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টার তৈরির কাজ শুরু হয় বাংলা–ওডিশার সীমান্ত উদয়পুরের কাছে। ফোরশোর রোডের পাশে। দিঘা–শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের পাঁচ একর জমির ওপর। ২০১৭ সালের ১১ জুলাই এই কনভেনশন সেন্টারের শিলান্যাস করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। গত ডিসেম্বরে জেলা সফরে এসে প্রশাসনিক বৈঠকে তিনি কনভেনশন সেন্টারের কাজ দ্রুত শেষ করার পাশাপাশি অন্যান্য নানা বিষয়ে তিনি নির্দেশ দিয়ে গিয়েছিলেন জেলা প্রশাসনকে। রাজ্য নগরোন্নয়ন দপ্তরের তত্ত্বাবধানে কনভেনশন সেন্টারের যাবতীয় কাজ ইতিমধ্যে শেষ করে ফেলেছে দায়িত্বে থাকা ডিএমপি নির্মাণ প্রাইভেট লিমিটেড। উদ্বোধনের আগে দিঘাকে সাজিয়ে তুলতে ব্যস্ত জেলা প্রশাসন। 
আন্তর্জাতিক এই সেন্টারে এক হাজার বর্গমিটারের প্রদর্শশালা, সেমিনার হল, ভিআইপি লাউঞ্জ ও এক হাজার আসন বিশিষ্ট অডিটোরিয়াম থাকছে। সেই সঙ্গে থাকছে চারতারার আতিথেয়তার হাতছানি। সেখানে সুইমিং পুল, স্পা ব্লক, চিলড্রেন্স পার্ক, জিম, ব্যাঙ্কোয়েট হলের পাশাপাশি থাকছে ককটেল স্পা ও লা জবাব রসনা। দিঘা–শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের সদস্য এবং পূর্ব মেদিনীপুর জেলা পরিষদের সভাধিপতি দেবব্রত দাস বলেন, ‘‌রাজ্যের পর্যটন বিকাশে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি প্রথম থেকই দিঘাকে আলাদা নজরে দেখেন। দিঘাকে বিশ্বমানের করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে এই কনভেনশন সেন্টার গড়ার পরিকল্পনা নিয়েছিলেন তিনি।’‌

উদ্বোধনের অপেক্ষায় এই কনভেনশন সেন্টার। ছবি: প্রতিবেদক

জনপ্রিয়

Back To Top