আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ কেন্দ্র সতর্ক করছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও বারবার বলে যাচ্ছেন, খুব প্রয়োজন না হলে, বাড়ি থেকে কেউ বেরোবেন না। আজ বিকেল পাঁচটা থেকে লকডাউন শুরু হয়ে গেছে। চলবে শুক্রবার মধ্যরাত পর্যন্ত। করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। রাজ্যে আজই প্রথম করোনা আক্রান্তের মৃত্যু ঘটেছে। সতর্কতা থাকলেও আমজনতা কিন্তু এই পরিস্থিতিতেও পার্টি, পিকনিকের মেজাজে রয়েছে।
হাওড়া থেকে হুগলি, বারাসত থেকে বনগাঁ, কিংবা টালা থেকে টালিগঞ্জ। মদের দোকানে উপচে পড়েছে ভিড়। মুখ্যমন্ত্রী রবিবার দুপুরে লকডাউন এর কথা ঘোষণা করতেই মদের দোকানে লম্বা লাইন দেখা গেছে। সোমবার বিকেল চারটে অবধি কলকাতা সহ গোটা রাজ্যে চিত্রটা একই ছিল। তারপর থেকেই দোকান বন্ধ। আর খুলবে সেই শনিবার। পর্যাপ্ত পরিমাণে মজুত রাখতে হবে তো। সঙ্গে আবার ছিল মাংসের দোকানেও লম্বা লাইন। অর্থাৎ মদ আর মাংস দিয়ে আমজনতা পিকনিকে দিব্যি মজে গেছে।
গত শনিবার থেকেই বন্ধ হয়ে গিয়েছে গোটা রাজ্যের সমস্ত বার, পাব। অগত্যা কাউন্টারগুলিই ছিল আমজনতার ভরসা। রবিবার দুপুরে লকডাউনের কথা ঘোষণা হতেই তাই মদের দোকানে লাইন বেড়েছে। যেমন বারাসতের একটি শপে অন্যান্যদিন দুটি কাউন্টার খোলা থাকে। রবিবার বিকেল থেকে সেই শপের চারটি কাউন্টারই খুলে রাখা হয়। প্রতিটি কাউন্টারের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। 
করোনা আতঙ্ক আছে। সাবধানতা আছে। ওয়ার্ক ফ্রম হোম এর মাঝে আম আদমি কিন্তু চুটিয়ে পার্টি সেরে নিচ্ছে। 

জনপ্রিয়

Back To Top