Farakka: তৃণমূল ব্লক সভাপতির পদ নিয়ে দ্বন্দ্ব তুঙ্গে, দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করে বিপাকে এক নেতা  

আজকাল ওয়েবডেস্ক: তৃণমূল কংগ্রেসের প্যাড ব্যবহার করে এবং নিজেকে ব্লক সভাপতি হিসেবে পরিচয় দিয়ে রাজ্য এবং জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন মহলে চিঠি লেখার জন্য ফারাক্কার বাসিন্দা এজারত আলির বিরুদ্ধে সম্ভবত পুলিশে এফআইআর করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

 
তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, রাজ্যের শীর্ষ নেতৃত্ব মুর্শিদাবাদ জেলাকে সাংগঠনিকভাবে দুটি ভাগে বিভক্ত করার আগেই এজারত আলি ফারাক্কা ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর কাজকর্মে অসন্তুষ্ট হয়ে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৎকালীন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি আবু তাহের খান আলিকে তাঁর পদ থেকে সরিয়ে দেন এবং নির্বাচন পরিচালনা করার জন্য একটি কমিটি গড়ে দেন। সেই কমিটির একজন সাধারণ সদস্য ছিলেন এজারত আলি।  
তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক শীর্ষ নেতার দাবি, ভোট শেষ হওয়ার পরই আলি নিজেকে আবার ব্লক সভাপতি পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন প্রশাসনিক মহলে চিঠি লিখতে শুরু করেন। তৃণমূল কংগ্রেসের জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি তথা জঙ্গিপুরের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ খলিলুর রহমান বলেন, ‘বর্তমানে ফারাক্কাতে তৃণমূল কংগ্রেসের সাংগঠনিক কাজকর্ম পরিচালনার দায়িত্ব ইলিয়াস শেখ ও সালাম শেখকে দেওয়া রয়েছে। তাঁরা দু'জনে দলের যুগ্ম আহ্বায়ক। বর্তমানে ফারাক্কাতে আমাদের দলের ব্লক সভাপতির পদটি ফাঁকা রয়েছে।’ 

আরও পড়ুন: বাংলাদেশের ‘নীরব মোদি’ পিকে হালদারের বিপুল সম্পত্তির খোঁজ কলকাতার বুকে!  


সাংগঠনিক জেলা সভাপতি আরও বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছি, সম্প্রতি এজারত আলি তৃণমূল কংগ্রেসের প্যাড ব্যবহার করে এবং নিজেকে ব্লক সভাপতি পরিচয় দিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন মহলে চিঠি লিখে একাধিক ইস্যুতে তৃণমূল নেতৃত্বকে বিপাকে ফেলার চেষ্টা করছেন। তাঁর কাজকর্মে দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে। তাই আজ (শনিবার) আমরা তাঁর বক্তব্য জানতে চেয়ে তাঁকে ডেকে পাঠিয়েছি। আলি সন্তোষজনক জবাব দিতে না পারলে আমরা বিষয়টি শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির কাছে পাঠিয়ে দেব।’
জঙ্গিপুর সাংগঠনিক জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান কানাইচন্দ্র মণ্ডল বলেন, ‘এজারত আলি আমাদের দলের একজন সদস্য হলেও উনি ব্লক সভাপতি নন। কিন্তু বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে আমরা দেখতে পাচ্ছি এজারত আলি নিজেকে ব্লক সভাপতি পরিচয় দিচ্ছেন। আমরা গোটা বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যে তদন্ত শুরু করেছি। আজ আলিকে তাঁর নিজের সপক্ষে বক্তব্য পেশের জন্য বিকেল চারটের সময় জঙ্গিপুরের দলীয় কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে। এজারত আলি যদি নিজের কাজকর্মের সপক্ষে সঠিক যুক্তি দিতে না পারেন তাহলে তৃণমূল কংগ্রেস দল তাঁর বিরুদ্ধে দলের ভুয়ো প্যাড ব্যবহার করা, ভুয়ো পরিচয় ব্যবহার করার জন্য পুলিশে এফআইআর করবে।’ 
এদিকে এজারত বলেন, ‘দলীয় নেতৃত্ব আমার বক্তব্য শোনার জন্য আজ আমাকে ডেকেছে। পার্টি অফিসে গিয়ে আমার যা বলার বলব। কিন্তু দলীয় নেতৃত্বের কাছে জানার রয়েছে, আমি যদি ব্লক সভাপতি না থাকি তাহলে ফারাক্কা ব্লকে দলের সভাপতি কাকে মনোনয়ন করা হয়েছে? তাছাড়া আমাকে যে ব্লক সভাপতির পদ থেকে সরানো হয়েছে এমন কোনও চিঠি আজ পর্যন্ত আমি পাইনি।’
 

আকর্ষণীয় খবর