‌আজকালের প্রতিবেদন: পুজোকমিটিগুলিকে আয়কর দপ্তরে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। কেন্দ্রের এই ‘‌হেনস্থা’‌ ও ‘‌প্রতিশোধমূলক’‌ আচরণের তীব্র প্রতিবাদ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবার এখানে যাত্রা উৎসবে ভাষণে এই প্রসঙ্গে মমতা বলেন, ‘‌ওদের উদ্দেশ্যটা কী?‌ দুর্গাপুজো বন্ধ করে দেওয়া?‌ আমরাও ছেড়ে কথা বলব না। পুজো কমিটিগুলোকে বলছি, ডাকলে যাবেন না। সবাই মিলে জোট বাঁধুন।’‌ মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, বাংলার সেরা উৎসব দুর্গাপুজো। আর এই উৎসব পালনে শুধু সম্প্রীতি নয়, চাঁদা দেয় জনগণ। লাভের জন্য পুজো হয় না। তাহলে, আয়কর দপ্তর এখানে হস্তক্ষেপ করবে কেন?‌ মমতা আয়কর দপ্তরের এই ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করে আরও বলেছেন, ‘‌নোটবন্দির নামে কত টাকা লুঠ হয়েছে, কত টাকা ইনকাম ট্যাক্স জমা হয়েছে— তার হিসেব আছে?‌ গুন্ডারা সব তো দেশের বাইরে। আর এখন দুর্গাপুজো বন্ধ করার চেষ্টা হচ্ছে। এর জন্যই আয়কর দপ্তরের ডাক ক্লাবগুলোকে। একটা ক্লাবের গায়ে হাত পড়লে ছেড়ে কথা বলব না।’‌ মুখ্যমন্ত্রীর মতে, সারা ভারতে অনেক ট্রাস্ট আছে। অনেক মন্দির আছে। এরা ইনকাম ট্যাক্স দেবে? শুধুমাত্র দুর্গাপুজো বন্ধ করতে এ রাজ্যের ক্লাবগুলোকে ডাকছে মোদির সরকার। এবার তো তাহলে রমজান মাসে রোজা করার জন্যও ইনকাম ট্যাক্স চাইবে। মা–‌বোনেরা রান্না করলেও ট্যাক্স দিতে হবে। সাংবাদিকরা ছবি তুললেও ইনকাম ট্যাক্স চাইবে ওরা।’‌ ‌

 

বাবুঘাটে মুখ্যমন্ত্রী। শুক্রবার। ছবি: কুমার রায়

জনপ্রিয়

Back To Top