আজকালের প্রতিবেদন, শিলিগুড়ি, ৫ ফেব্রুয়ারি- রাজ্য সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন বাংলার মানুষ, উত্তরবঙ্গের মানুষ। সোমবার শিলিগুড়ির সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি তাঁর ভাষণে উল্লেখ করেন প্রকল্পগুলির কথা। চা–‌বাগানগুলিতে শ্রমিকদের জন্য ৪৭ পয়সায় চাল, বিনা পয়সায় চিকিৎসার ব্যবস্থা, আশা প্রকল্প, আইসিডিএস, পঞ্চায়েতগুলিতে স্বাস্থ্যসাথী ইত্যাদি প্রকল্পে মানুষ উপকৃত হয়েছেন বলে মনে করেন তিনি। রাজ্য বাজেটে কৃষক ভাতা বেড়েছে, প্রতিবন্ধীদের জন্য নানা সুযোগ–‌সুবিধা, খাজনা মকুব, কিসান কার্ড, সংখ্যালঘুদের বৃত্তি—  এইসব জনমুখী সিদ্ধান্তে এগিয়ে চলেছে বাংলা। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, ‘ঢেলে উন্নয়নের কাজ চলছে। পাহাড় থেকে অরণ্য, সর্বত্র উন্নতি করতে হবে।’‌ তিনি জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে রাজবংশী কুরুক ও কামতাপুরি ভাষাকে সরকারি স্বীকৃতি দেওয়ার তোড়জোড় শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে শিগগিরই বিধানসভায় বিল পেশ করা হবে।’ 
কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে এদিনের ছাত্র–যুব সম্মেলনে দলের বেশ কিছু কর্মসূচির কথাও ঘোষণা করেন তৃণমূল নেত্রী। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ৬ ও ৭ মার্চ উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের প্রতিটি ব্লকে মহিলাদের মিটিং–মিছিল করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবসে কলকাতায় গান্ধীমূর্তির নিচে সভা হবে। সেখানে উপস্থিত থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী নিজেও। শ্রমিক আন্দোলনকে আরও চাঙ্গা করার ডাক দিয়ে মমতা তাঁর ভাষণে বলেছেন, ‘ট্রেড ইউনিয়নকে আরও সক্রিয় করুন। তবে কারখানার গেট বন্ধ করে নয়, শ্রমিক এবং মালিকদের সুসম্পর্ক বজায় রেখে আন্দোলন করতে হবে।’

কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে অভিষেক ব্যানার্জি। সোমবার। ছবি: কৌশিক চক্রবর্তী

জনপ্রিয়

Back To Top