বিটকয়েনের সাহায্যে চীনে পাচার হত টাকা, হানকে জেরায় চাঞ্চল্যকর তথ্য, ISI-এর যোগেরও আশঙ্কা

আজকাল ওয়েবডেস্ক: মালদহ থেকে গ্রেপ্তারের পর চিনা নাগরিক হানকে জেরা করে প্রচুর ভুয়ো সংস্থার হদিশ পেলেন গোয়েন্দারা। ওই ভুয়ো সংস্থার নাম করে বেশি সুদ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে লগ্নিকারীদের থেকে টাকা তুলত হান ও তাঁর সঙ্গীরা। আর সেই টাকা বিটকয়েনের মাধ্যমে চীনে পাচার করা হত বলে জানতে পারছেন তদন্তকারীরা। ওই জালিয়াতির টাকা ভারত বিরোধী কোনও কার্যকলাপে কাজে লাগানো হত কিনা তারও প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে। সে ক্ষেত্রে পাকিস্তানের চর আইএসআইয়ের সঙ্গে এদের যোগাযোগ রয়েছে কিনা সেই দিক খতিয়ে দেখছে গোয়েন্দারা। ভারত থেকে পাচার হওয়া ১৩০০ সিম কার্ডের সাহায্যেও জালিয়াতি করত তারা।

এমনকি, বাংলাদেশ এবং মায়ানমারে টাকা লেনদেন হত বলে সন্দেহ করছেন গোয়েন্দারা। সেইজন্য হাওয়ালা চক্রের সাহায্য নিত বলে অনুমান। হানের থেকে উদ্ধার করা ল্যাপটপ এবং মোবাইলের পাসওয়ার্ড জানতে চাইলে সে ভুল পাসওয়ার্ড দিয়ে চলছে বলে জানা গিয়েছে। সেই জন্য কলকাতায় ওই ল্যাপটপ, মোবাইল নিয়ে এসে সাইবার ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হচ্ছে এবং সেগুলি খুললে আরও বেশ কিছু তথ্য পেতে পারে গোয়েন্দারা, বলে মনে করা হচ্ছে। বড় কোনও আন্তর্জাতিক চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকতে বলেও আশঙ্কা করছেন গোয়েন্দারা।