নিরুপম সাহা, ‌বাগদা: সিমেন্টের পিলারের সঙ্গে কাপড় বেঁধে দোলনা তৈরি করে দোল খাওয়ার সময় আচমকাই সেই পিলার ভেঙে তার নিচে চাপা পড়ে মারা গেল দুই শিশু। জখম হয়েছে আরও এক শিশু। সোমবার রাতে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানার কুড়ুলিয়া গ্রামে। পুলিশ এবং পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সোমবার দিদার সঙ্গে বনগঁার গোবরাপুরের বাড়ি থেকে বাগদার কুড়ুলিয়ায় মামাবাড়িতে বেড়াতে যায় অর্জুন ঘোষ (‌৩)‌। এদিন রাত ১০টা নাগাদ মাসি সম্পর্কীয় পায়েল ঘোষ (‌৮)‌ এবং ঝুমা ঘোষ নামে আরও এক শিশু দোলনায় চড়ার আবদার করে। 
তাদের আবদার মেটাতে শাড়ির একটি অংশ ঘরের সিমেন্টের পিলারের সঙ্গে এবং অন্য একটি পাশ জানালার সঙ্গে বেঁধে দোলনা তৈরি করে দেওয়া হয়। ওই তিন শিশু একসঙ্গে তাতে চড়ে দোল খাচ্ছিল। ঘরের এদিক–ওদিক ছড়িয়ে ছিটিয়ে গল্প করছিলেন বড়রা। এরই মধ্যে সিমেন্টের পিলারটি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে ওই শিশুদের ওপর। তাতেই জখম হয় তারা। আহত শিশুদের ওই রাতেই বাগদা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা পায়েল এবং অর্জুনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ঝুমাকে চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। এই ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, এদিন রাতের খাওয়াদাওয়া সেরে বাড়ির বড়রা নিজেদের কাজে ব্যস্ত ছিলেন। আর ওই ৩ শিশু দোল খাচ্ছিল। আর তখনই তাদের ভারে নড়বড়ে পিলারটি ভেঙে পড়ে। কিছুদিন আগেই এই বাড়ির মালিক সুকুমার ঘোষ নিজের বাড়ির টালির চাল বদলে টিনের চাল লাগান। যদিও পিলারগুলি পুরনোই ছিল। আর সেই পিলার থেকেই এমন দুর্ঘটনা ঘটে।

জনপ্রিয়

Back To Top