সব্যসাচী সরকার: নারদ–‌ভিডিও ম্যাথু স্যামুয়েলের আইফোন দিয়েই তোলা হয়েছিল কি না, তা নিয়ে নিশ্চিত হতে অ্যাপল কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করেছে সিবিআই। অ্যাপল অবশ্য জানিয়ে দিয়েছে, ওই মোবাইলে থাকা ডেটা বিষয়ে কোনও তথ্য তারা জানাবে না। তবে ভিডিও করার সময় অ্যাপল আইফোনের ক্ষেত্রে ‘‌আইক্লাউড স্টোর’‌–‌এর তথ্য যথাযথ কি না তা জানতে এবার আমেরিকায় পাড়ি দিচ্ছেন নারদ–‌কাণ্ডের তদন্তকারী অফিসারেরা। অ্যাপল সংস্থায় গিয়ে সেখানকার কর্তাদের উপস্থিতিতেই তথ্য জানবে সিবিআই। আমেরিকায় ভারতীয় হাই কমিশনের মারফত সিবিআই এ বিষয়ে আবেদন জানিয়েছিল। হাই কমিশনের তরফে সিবিআইকে এ ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়ার ক্ষেত্রে সবুজ–‌সঙ্কেত দিয়েছে। নারদ–‌ভিডিও তোলার ক্ষেত্রে ম্যাথু স্যামুয়েলের কাছে থাকা আইফোন ফোরএস মডেলটি ২০১৪ সালে ব্যবহার করা হয়েছিল কি না, তার তথ্য জানার পাশাপাশি আইএমইআই নম্বর থেকেই ভিডিও তোলা হয়েছিল তা জানবে সিবিআই।
নারদ–‌ভিডিও নিয়ে হইচই হওয়ার পর বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ায়। ভিডিও ফুটেজ জমা দেওয়া হয়। ভিডিও ফুটেজগুলি খতিয়ে দেখে সিবিআই। ম্যাথু তঁার আইফোন মোবাইলটি আদালতে জমা দেননি। তিনি মোবাইলে–‌থাকা ভিডিওগুলি ল্যাপটপে ডাউনলোড করেন। তার পর সেটি সম্প্রচার করা হয়। সিবিআইয়ের প্রশ্ন, মোবাইল থেকে ল্যাপটপে ভিডিওগুলি নেওয়ার সময় কোনও কারিগরি কৃৎকৌশলের সহায়তা নিয়েছিলেন কি না তা বিচার্য বিষয়। যদিও ম্যাথু স্যামুয়েল বারে বারেই বলে এসেছেন, আইফোন ফোরএস থেকেই ভিডিও করা হয়েছিল। ম্যাথু যাকে বলতেন ‘‌স্পাইং উইথ লিট্‌ল আই’‌!‌
২০১৪ সালে ম্যাথু স্যামুয়েল সন্তোষ শঙ্করন নাম নিয়ে চেন্নাইয়ের একটি ঠিকানা ব্যবহার করে তার ভুয়ো সংস্থা ইমপেক্স খোলেন। তার পরই ম্যাথুর বক্তব্য অনুযায়ী কে ডি সিংয়ের সংস্থা অ্যালকেমিস্টের ৮০ লক্ষ টাকা আর্থিক সহায়তায় নারদ–‌ভিডিও তৈরি করেন। মঙ্গলবারও ম্যাথু স্যামুয়েল সিবিআই দপ্তরে যান। এবং কয়েকটি বিষয়ে নতুন যুগ্ম অধিকর্তার সঙ্গে কথা বলেন।
প্রসঙ্গত, মার্কিন পুলিস এক সময় এক জঙ্গির অ্যাপল আইফোন পায়। তার ভেতর জঙ্গি গোষ্ঠী সম্পর্কে বহু তথ্য ছিল। আমেরিকার তদন্তকারীরা অ্যাপল সংস্থাকে বলেছিল ওই মোবাইলে–‌থাকা সমস্ত ডেটা প্রকাশ করতে। কিন্তু তখন অ্যাপল তা অস্বীকার করেছিল। পরে ইজরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থার সহায়তায় ওই মোবাইল থেকে ডেটা সংগ্রহ করা হয়। অ্যাপল তখন জানিয়েছিল, তাদের সংস্থার সুনাম ও ব্র‌্যান্ড ভ্যালু এখানেই যে, তারা কোনও পরিস্থিতিতেই অ্যাপল ব্যবহারকারীর তথ্য কোথাও প্রকাশ করে না।

জনপ্রিয়

Back To Top