চন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, বোলপুর: বাবার কথা মত ১৭বছরের ছেলে চালাতে শুরু করে স্কুলের পুল কার। মুহূর্তে দুর্ঘটনা। গুরুতর আহত ১৩ পড়ুয়া। তাদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক তাকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েই বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ছুটে আসেন জেলা শাসক পি মোহন গান্ধী। স্থানীয় সুত্রে খবর বৃহস্পতিবার বিকালে কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীদের পুল কারে নিয়ে বোলপুর থানার মুলুক গ্রামের মনিনুল মণ্ডল অনান্য দিনের মত আসছিলেন। এদিন মুলুক গ্রামে এসে তিনি তার ছেলে আমানুল্লা মণ্ডল কে বলেন ছাত্র ছাত্রীদের বাড়ি পৌঁছে দিতে। তার পরেই দুর্ঘটনায় পরে ওই পুল কার। মুলুক গ্রামের কাছেই জামতলায় দ্রুতগতিতে চলা পুল কার ধাক্কা মারে একটি ইলেকট্রিক পোলে তারপরে উল্টে যায় রাস্তার ধারের খাদে। স্থানীয়দের চেষ্টায় ১৩জন পড়ুয়া কে গুরুতর আহত অবস্থায় বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাদের মধ্যে এক জনের অবস্থা অশঙ্কাজনক হওয়াতে তাকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়েই বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে ছুটে আসেন বীরভূমের জেলা শাসক পি মোহন গান্ধী। কথা বলেন আহত ছাত্র ছাত্রীদের সঙ্গে। এঘটনায় অবিলম্বে তদন্ত শুরু করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবার প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। ইতিমধ্যেই পুল কারের চালক মনিনুল মণ্ডল কে গ্রেফতার করেছে বোলপুর থানার পুলিশ।

জনপ্রিয়

Back To Top