Techno Global Hospital: টেকনো গ্লোবাল হাসপাতালে চালু হল ব্লাড সেন্টার

সোহম সেনগুপ্তঃ টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ-এর কর্ণধার সত্যম রায়চৌধুরীর উদ্যোগে টেকনো গ্লোবাল হাসপাতালের পরিচালনায় ব্যারাকপুরে চালু হল প্রথম বেসরকারি ব্ল্যাড ব্যাংক। বুধবার এই ব্লাড ব্যাংকের উদ্বোধন করেন বেলুড় মঠের রামকৃষ্ণ মিশন ও সারদা পীঠের সম্পাদক স্বামী শাস্ত্রজ্ঞানানন্দ মহারাজ। পদ্মশ্রী পুরস্কার প্রাপ্ত চিকিৎসক ডাঃ জগদীশ চন্দ্র হালদারের তত্ত্বাবধানে কাজ করবে এই সেন্টার। তিনি ছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ তপন রায়চৌধুরী, ডাঃ কিশলয় বিকাশ মুখার্জি, ব্যারাকপুর পুরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস, হাসপাতালের ডিরেক্টর তিথি বিশ্বাস, টেকনো সি ই ও ডঃ শঙ্কু বোস, ডাঃ(কর্নেল) সুস্নিগ্ধ মজুমদার, ব্যারাকপুরে পুলিশ কমিশনারেটের এসিপি প্রদীপ পাল, ব্লাড ব্যাঙ্ক ডিরেক্টর বিদেশ ঘোষ, স্বপন দাস সহ বিশিষ্টজনেরা।

আরও পড়ুন: Cabinet Reshuffle: পরিবহনে স্নেহাশিস, সেচে পার্থ, পর্যটনে বাবুল, শিল্প গেল শশীর হাতে

বুধবার এই অনুষ্ঠানে স্বামী শাস্ত্রজ্ঞানানন্দ মহারাজ জানান, 'এখানে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে রক্তের বিভিন্ন উপাদান আলাদা করার ব্যবস্থা রয়েছে। সেই উপাদান ব্যবহার করে প্রাণ বাঁচবে বহু মুমূর্ষু মানুষের।' শুধু রক্তের কার্ড দিলেই রক্ত পাওয়া যাবে এখানে।  এই কাজ এক কথায় দৃষ্টান্ত বলেও জানান তিনি। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শুধু রক্ত ও রক্তের উপাদান দিয়ে মুমূর্ষু মানুষের প্রাণ বাঁচানোই নয়,  সরকারি ব্ল্যাড ব্যাংকেও যদি রক্তের প্রয়োজন হয়, তাহলে তাদেরও সেই প্রয়োজনীয় রক্তের ব্যবস্থা করে দেবে এই ব্ল্যাড ব্যাংক।

এদিন এই ব্ল্যাড ব্যাংকের সমস্ত ইউনিট ঘুরে দেখেন ব্যারাকপুর পুরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস। তিনি বলেন, 'করোনা কাল তো বটেই, বিভিন্ন সময়ে মানুষের আপদে বিপদে পাশে দাঁড়িয়েছে টেকনো গ্লোবাল হাসপাতাল। বেসরকারি উদ্যোগে এদিন যে ব্ল্যাড ব্যাংক তারা চালু করল তাতে বহু মানুষ উপকৃত হবেন।' প্রসঙ্গত,  উত্তর ২৪ পরগনা জেলার ব্যারাকপুর ও বারাসত রোডের পাশেই অবস্থিত বলে দুটি বড় শহরের মানুষই এই ব্ল্যাড ব্যাংকের পরিষেবায় সরাসরি উপকৃত হবেন বলে জানা গিয়েছে। এছাড়া থ্যালাসেমিয়া আক্রান্তদের পাশে দাঁড়াতে এই ব্ল্যাড ব্যাংক বড় ভূমিকা নেবে। রোগীর সুরক্ষার জন্য এখানে বসানো হয়েছে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতিও। হাসপাতালের পক্ষ থেকে এদিন জানানো হয়, ২৪ ঘন্টাই খোলা থাকবে এখানকার ব্ল্যাড ব্যাংক। রক্তের উপাদান যেমন হোল ব্লাড কনসেন্ট্রেট, আরবিসি, প্লেটলেট কনসেন্ট্রেট, ফ্রেশ ফ্রোজেন প্লাজমাসহ রক্তের সব উপাদানই এই ব্ল্যাড ব্যাংক থেকে সরবরাহ করা হবে। রক্ত দাতা ও গ্রহীতার মধ্যে যাতে রক্তের গ্রুপ ঠিকমত মেলে তার জন্যও অত্যাধুনিক ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। শুধু তাই নয় ব্লাড সেন্টারে রক্তদান ,রক্তদাতার কাউন্সেলিং-এর ব্যবস্থাসহ সবকিছুই থাকছে। স্বেচ্ছায় রক্তদান আন্দোলনকে শক্তিশালী করতে টেকনো ইন্ডিয়া গ্রুপ-এর এই উদ্যোগে খুশি উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বাসিন্দারা।

আকর্ষণীয় খবর