সুরজিৎ ঘোষ হাজরা, বোলপুর, ৮ এপ্রিল

 ইলামবাজার থানার শীর্ষা গ্রামে একই পরিবারের পাঁচ বিজেপি সদস্যকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ অস্বীকার করেছে রাজ্যের শাসক দল। স্থানীয় সূত্রে খবর, শীর্ষা গ্রামের এই পাঁচ ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরেই এলাকায় সক্রিয় বিজেপি সদস্য বলেই পরিচিত। এলাকার বিজেপি নেতা চিত্ত ঘোষের অভিযোগ, তৃণমূল কর্মীরা তাঁদেরকে দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি করতে বাধা দিচ্ছিল। বুধবার রাতে তাঁদেরকে একত্রিত হয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। তাঁদের ধারালো অস্ত্র ও লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারধর করা হয়। আহত পাঁচজনকে ইলামবাজার প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। এদের মধ্যে দু’‌জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের বোলপুর মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। আহত পাঁচ বিজেপি সদস্যরা হলেন–সঞ্জয় হাজরা, প্রহ্লাদ হাজরা, ভজহরি হাজরা, বলহরি হাজরা, নদের চাঁদ হাজরা।  যদিও স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছে। এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা দুলাল রায়ের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূলের কোনও যোগ নেই, এটা বিজেপির অন্তর্কলহের ফল। গতকাল রাত থেকেই ইলামবাজার থানার বিশাল পুলিশবাহিনী গ্রামে রয়েছে। এই ঘটনায় এখনও কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। 

জনপ্রিয়

Back To Top