Biswa Bharati: বিশ্বভারতীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়ের, কাল শুনানি 

সুরজিৎ ঘোষ হাজরা, শান্তিনিকেতন:‌ বহিস্কৃত তিন পড়ুয়ার পক্ষ থেকে কলকাতা হাইকোর্টে বিশ্বভারতীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ দায়ের করা হল। বুধবারই এই মামলার শুনানি রয়েছে।
 আদালতের নির্দেশের পর এক সপ্তাহ কেটে গেলেও, এখনো পর্যন্ত বহিস্কৃত তিন পড়ুয়া ক্লাসে ফেরার অনুমতি পাননি। কর্তৃপক্ষকে ই–মেলের পর ই–মেল করেও কোনও সাড়া পাওয়া যায়নি। অগত্যা ক্লাসে ফিরতে মরিয়া বিশ্বভারতীর তিন বহিস্কৃত পড়ুয়ার হয়েই কলকাতা উচ্চ আদালতে বিশ্বভারতীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার অভিযোগ এনে পিটিশন দাখিল করেছেন সোমনাথ সৌ। 
মঙ্গলবার বহিস্কৃত পড়ুয়া সোমনাথ সৌ বলেন, ‘‌আমরা আদালতের নির্দেশ পাওয়ার পর সেটা অক্ষরে অক্ষরে পালন করেছি। আমাদের যা করণীয় আমরা করেছি। কিন্তু আমাদের ক্লাসে ফেরানোর ব্যাপারে আদালতের যা নির্দেশ ছিল তা পালন করেননি কর্তৃপক্ষ। আদালতের নির্দেশকে কৌশলে অবমাননা করছে কর্তৃপক্ষ। অধ্যক্ষ ও বিভাগীয় প্রধানকে চিঠি করেই দায় সেরেছে। তাই ফের আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হয়েছি। আদালত অবমাননার পিটিশন দাখিল করেছি।’‌ 

গত বুধবার কলকাতা উচ্চ আদালতের বিচারক বিচারপতি রাজশেখর মান্থার পড়ুয়াদের অবস্থান নিয়ে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের করা মামলার শুনানিতে বহিস্কৃত পড়ুয়াদের অবিলম্বে ক্লাসে ফেরানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন। নির্দেশ পেয়েই ক্লাসে ফিরতে চেয়ে কর্তৃপক্ষকে ই–মেল করেছিলেন বহিস্কৃত তিন পড়ুয়া সোমনাথ সৌ, ফাল্গুনী পান ও রূপা চক্রবর্তী। গত শুক্রবার গভীর রাতে পড়ুয়াদের ক্লাসে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে আদালতের নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অধ্যক্ষ ও বিভাগীয় প্রধানদের চিঠি দিয়েছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টর। এরপর আর কোনও পদক্ষেপ চোখে পড়েনি কর্তৃপক্ষের তরফে। মঙ্গলবার বিকাল পর্যন্ত পড়ুয়াদের ক্লাসে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে কোনও লিঙ্ক পাননি পড়ুয়ারা। 
এর মাঝেই অর্থনীতি ও রাজনীতি বিভাগের ছাত্র সোমনাথ সৌ ফের ই–মেল করে দুটি দাবি করেছেন বিভাগীয় প্রধানের কাছে–বহিস্কারের কারণে পরীক্ষা দিতে না পারাকে ‘বিশেষ ঘটনা’ হিসাবে দেখে আগামী সাতদিনের মধ্যে সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার ব্যবস্থা করে দশদিনে ফল প্রকাশ করা হোক। আর পরীক্ষা নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ২০২১–২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতকোত্তরে ভর্তির ব্যবস্থা করা হোক। স্বাভাবিকভাবেই এই ই–মেলেরও কোনও উত্তর পাননি সোমনাথ সৌ।
কর্তৃপক্ষের এমন গড়িমসিকে আদালত অবমাননার শামিল হিসাবে দেখছেন বহিস্কৃত পড়ুয়া ও আন্দোলনকারীরা। সোমনাথ সৌ’র আইনজীবী শামিম আহমেদ জানিয়েছেন, ‘‌আদালত অবমাননার পিটিশন দাখিল করা হয়েছে। বুধবার ফের মামলার শুনানি আছে। বিচারপতির সামনে এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করা হবে জোরালোভাবেই।’