আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ বালির জেটিয়া ঘাটে যুবতীর টুকরো করা দেহকান্ডে দুদিনের মধ্যে কিনারা করল পুলিস। গ্রেপ্তার হয়েছে মৃতার স্বামী সহ তিনজন। পুলিস জানিয়েছে, সোনি রজক নামে ২৬ বছরের ওই যুবতী হাওড়ার শিবপুরের বাসিন্দা। জিটি রোড এবং বালিঘাটের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে পুলিস জানতে পারে বৃহস্পতিবার ভোররাতে ট্যাক্সি করে এসে কয়েকজন প্রায় নির্জন জেটিয়া ঘাটে ওই ব্যাগটি ফেলে চম্পট দেয়। ফুটেজে ট্যাক্সির নম্বর এবং তথ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখে শুক্রবার দিনভর তল্লাশি চালিয়ে সোনির স্বামী উপেন্দ্র রজক এবং তার দুই বন্ধুকে গ্রেপ্তার করে পুলিস। পুলিসের দাবি, জেরায় উপেন্দ্র স্বীকার করেছে, সোনির বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে তাঁদের মধ্যে দাম্পত্য টানাপোড়েন চলছিল। তার জেরেই দুই বন্ধুর সঙ্গে মিলে স্ত্রীকে প্রথমে খুন করে তারপর তাঁর দেহ টুকরো করে ফেলে দিয়ে যায় তারা।
বৃহস্পতিবার সকালে জেটিয়া ঘাটে একটি ট্রলি ব্যাগের মধ্যে সোনির মুন্ড এবং টুকরো করা দেহাংশ উদ্ধার হয়েছিল। পাশেই পড়ে থাকা একটি কাপড়ের ব্যাগে উদ্ধার হয়েছিল তিনটি চপার, একটি ভোজালি, একটি ছুরি, কর্দমাক্ত নীল জিনসের প্যান্ট, কালো জামা এবং একটি দস্তানা। স্থানীয় বাসিন্দারা ব্যাগ দুটি প্রথমে খুলে দেখে তারপর পুলিসে খবর দেন। 
ছবি:‌ কৌশিক কোলে  

জনপ্রিয়

Back To Top