গৌতম চক্রবর্তী: পরিচারিকা মা ভাবতেই পারছেন না তাঁর ছেলে আর নেই। ছেলে বাঘাযতীন–রানিকুঠি রুটের অটোচালক। কিন্তু কয়েক দিন হল কাজে যাচ্ছিলেন না। হাত ফাঁকা। টাকাপয়সা নেই তেমন। তাই বাড়ির লোকজনের কাছে মাত্র ১০০ টাকা চেয়েছিলেন। সে–‌টাকা ছেলেকে দিতে পারেননি তাঁরা। দেবেনই বা কীভাবে?‌ তাঁরাও যে বড় অভাবী!‌ তবে তার জন্য ছেলে এমন একটা কাজ করে বসবে, সেটা তাঁদের ধারণারও বাইরে ছিল। মাত্র ১০০ টাকার জন্য আত্মহত্যা করেন সুশান্ত সিং (‌২০)‌ নামে ওই অটোচালক। সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে সোনারপুর থানা এলাকার বিদ্যাধরপুরে। ঘটনায় হতবাক প্রতিবেশী ও মৃতের বন্ধুরা। সোমবার অনেক রাতে দরজার ফাঁক দিয়ে ছেলের ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান বাবা। উদ্ধার করে সুভাষগ্রাম হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। মঙ্গলবার দেহ ময়নাতদন্তে পাঠায় পুলিশ। অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে সোনারপুর থানার পুলিশ। মৃতের বাবা পাচু সিং বলছিলেন, ‘‌ছেলে ১০০ টাকার জন্য জেদ করছিল। টাকা না দেওয়ায় রাগারাগি করে নিজের ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে দেয়। ভেবেছিলাম রাগ করেছে, পরে ঠিক হয়ে যাবে। তার পর দরজার ফঁাক দিয়ে দেখি, ওর ঝুলন্ত দেহ!‌’‌

জনপ্রিয়

Back To Top