আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ মেলার ভিড়ের মধ্যেই এক যুবককে গুলি করে খুনের চেষ্টা দুষ্কৃতীর। বুকে গুলি লেগে গুরুতর জখম ওই যুবক ভর্তি কৃষ্ণনগরের শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে। জখম যুবক তৃণমূলের সক্রিয় কর্মী বলে জানা গিয়েছে। অভিযোগ, তাঁর উপর এমন হামলা চালিয়েছে স্থানীয় বিজেপির এক কর্মী। আজ সকালে তৃণমূলের পক্ষ থেকে প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী মোতায়েন হয়েছে।
সোমবার রাতে নদিয়ার হাঁসখালি থানার জয়পুর গ্রামের মেলায় গিয়েছিলেন বছর কুড়ির দিবাকর সরকার। মেলাতেই এলাকার আরেক যুবক সুবীরের সঙ্গে তাঁর বচসা হয়। অভিযোগ, এরপরই দিবাকরকে লক্ষ্য করে সুবীর গুলি চালায়। একটি গুলি তাঁর বুকে লাগে, আরেকটি গুলি হাত ঘেঁষে বেরিয়ে যায়। মেলার মধ্যে প্রকাশ্যে এই ঘটনা ঘটায় তীব্র উত্তেজনা দেখা দেয়। যদিও গুলিবিদ্ধ অবস্থাতেই দিবাকর তাঁর পরিচিত গৌতম মুখার্জিকে ফোন করে বলে, ‘তাড়াতাড়ি এসো। আমাকে গুলি করা হয়েছে।’ গৌতম মুখার্জি জানিয়েছেন, ‘আমরা ছুটে গিয়ে দিবাকরকে তড়িঘড়ি বগুলা গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাই। সেখান থেকে দিবাকরকে কৃষ্ণনগরের শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। বর্তমানে ওই হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছে দিবাকর। আমাদের এলাকার একটি ক্লাব দখল করতে গিয়েছিল বিজেপির লোকজন।’ তিনি আরও জানান, অভিযুক্ত সুবীর বিজেপি কর্মী। ক্লাব দখলে বাধা পেয়ে আক্রোশেই সে দিবাকরকে খুনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ গৌতমবাবুর। একই অভিযোগ জানিয়েছেন দিবাকরের বাবা দিলীপ সরকারও। অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে। 
 

জনপ্রিয়

Back To Top