আজকাল ওয়েবডেস্ক: ‌বাঘের দাঁত পাচার করার সময় হাতেনাতে বনদপ্তরের হাতে ধরা পড়ল তিন জন। জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার গভীর রাতে জলপাইগুড়ির নাগরাকাটা থেকে এই তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে বনদপ্তরের আধিকারিকরা। ধৃতদের কাছ থেকে ২টি রয়্যাল বেঙ্গলের দাঁত পাওয়া গিয়েছে। বনদপ্তরের আধিকারিকরা জানিয়েছেন, গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়। বনদপ্তরের কর্মীরা আরবিয়ান সেজে পাচারকারীদের সঙ্গে দেখা করেন। এরপরই নাগরাকাটা থেকে এদের ধরা হয়।ধৃতদের মধ্যে ২ জন ছাত্র এবং একজন মহিলা। জেরার মুখে ধৃতরা জানিয়েছে, এই বাঘের দাঁত দু’‌টি চীনে পাচার করার ছক ছিল তাদের। পুলিসি নজরদারি এড়াতে নেপাল হয়ে চিনে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিল তারা।

কিন্তু চীনে পাচার করার আগেই তারা বনদপ্তরের হাতে ধরা পড়ে যায়। এই চক্রের পেছনে আর কারা কারা জড়িত এবং বাঘের দাঁত দু’‌টি কোথা থেকেই বা তারা পেল গোটাটাই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, গত দু'বছর ধরে এই এলাকায় বাঘের দাঁত সহ চামড়া ভিনদেশে পাচার করা হচ্ছে। কোটি কোটি টাকা বাঘের দাঁত ও চামড়া কখনও নেপাল সীমান্ত হয়ে কখনও বা সিকিমের নাথুলা হয়ে চীনে পাচার হচ্ছে। আগেও এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। পাচার চক্র সবসময়ই ছাত্র বা মহিলাদের এই কাজে ব্যবহার করে। কারণ তাদের ব্যাগের মাধ্যমে বেআইনিভাবে পশুদের দাঁত ও চামড়া পাচার করতে সুবিধা হয়। অনেকসময়ই লাক্সারি বাসের ছাদে মালপত্রের নীচেও পাচারের জিনিস নিয়ে যাওয়া হয়। এই ঘটনার একদিন আগেই চিতাবাঘের চামড়া সহ গ্রেপ্তার করা হয়েছে দুই পাচারকারীকে।

জনপ্রিয়

Back To Top