Howrah: হাওড়ায় পুলিশের পোশাকে ঘরে ঢুকে এক যুবককে খুন, আমতায় চাঞ্চল‍্য, পার্ক সার্কাসে বিক্ষোভ

আজকাল ওয়েবডেস্ক: পুলিশ সেজে ঘরে ঢুকে এক যুবককে খুন করা হল।

শুক্রবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার আমতা থানার দক্ষিণ খান পাড়ায়। পুলিশের দাবি, তাদের কোনও কর্মী বা আধিকারিক এই ঘটনায় যুক্ত নন। মৃত আনিস খান (২৮) আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। মৃতের বাবা সালাম খানের অভিযোগ, গভীর রাতে পুলিশের পোশাক পরা লোক এসে ঘরে ঢুকে তাঁর ছেলেকে ছাদ থেকে ফেলে দেয়। ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। 

তাঁর কথায়, রাতের বেলায় চারজন আসে। এদের মধ্যে একজনের গায়ে পুলিশের পোশাক এবং বাকি তিনজনের গায়ে সিভিক পুলিশের পোশাক ছিল। তারা এসে ঘরে ঢুকে ছেলের খবর জানতে চায়। এদের মধ্যে একজন তাঁকে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে দাঁড় করিয়ে রাখে এবং বাকি তিনজন ছাদে উঠে যায় ছেলের খোঁজে। এরপর ছাদ থেকে আনিসকে ফেলে দিলে সে কার্নিসে ধাক্কা খেয়ে মাটিতে পড়ে যায়। তিনি চিৎকার শুরু করলে দুষ্কৃতীরা পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় ছেলেকে তুলে তিনি হাসপাতালে নিয়ে যান। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মৃত আনিস রাজনৈতিকভাবে আইএসএফের সঙ্গে যুক্ত ছিল। 

রহস্য দানা বেঁধেছে এই ঘটনায়। কে বা কারা যুক্ত আছে সেবিষয়ে অনুসন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। মৃতের বাবার দাবি, তিনি যখন বলেন ছেলের খবর জানি না তখন দুষ্কৃতীরা বলে আনিস আধঘণ্টা আগে বাড়ি এসেছে। স্বাভাবিকভাবেই এটা পরিষ্কার, দুষ্কৃতীরা আনিসের আসার খবর পেয়েছিল। সেক্ষেত্রে এলাকারই কেউ এই ঘটনায় যুক্ত আছে কি না সেই বিষয়টিও ভাবাচ্ছে পুলিশকে। 

অন্যদিকে আনিসের মৃত্যুর ঘটনায় প্রতিবাদে সরব পড়ুয়ারা। শনিবার সন্ধেয় পার্ক সার্কাসে এই মৃত্যুর ঘটনা ঘিরে বিক্ষোভ দেখান একদল পড়ুয়া। প্রথমে মোমবাতি হাতে শান্তিপূর্ণ মিছিল শুরু হলেও পরবর্তীকালে জটিল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যান পড়ুয়ারা। যার ফলে অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে সেভেন পয়েন্ট ক্রসিংয়ের একাংশ। 

আরও পড়ুন: কোথাও মিষ্টিমুখ, আবার কোথাও বলপ্রয়োগ, মালদায় ১৪ জন বিক্ষুব্ধকে বহিষ্কার করল তৃণমূল 

আকর্ষণীয় খবর