Bally: বালিতে শেষ হল সারা বাংলা ক্যারম প্রতিযোগিতা, আর্থিক পুরস্কারের সঙ্গে ছিল স্মারক

আজকাল ওয়েবডেস্ক: ঘাপটি মেরে লুকিয়ে ছিল গুটিটা বোর্ডের একটা কঠিন কোণে। যেখানে হাত বাড়িয়েও পৌঁছনো যায় না। আঙুলের ইশারায় স্ট্রাইকার এগিয়ে গেল সেই দিকে। আলতো ছোঁয়া। বাধ্য ছেলের মতো গুটি ঢুকে পড়ল পকেটে। উল্লাসে ফেটে পড়লেন দুই বিজয়ী আফ্রিদি এবং বাদল। হাওড়ার বালিকেন্দ্র ক্লাব সমন্বয় সমিতির উদ্যোগে তিনদিন ধরে চলা সারা বাঙলা ক্যারম প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হল এই জুটি। ক্যারমের জগতে এঁরা বিখ্যাত আফ্রিদি-বাদল জুটি নামে। বিজিত হলেন মহম্মদ নৌশাদ এবং এস আলি। পুরস্কার হিসেবে বিজয়ী জুটির হাতে তুলে দেওয়া হল ৫০,০০০ টাকা এবং স্মারক। বিজিতরা স্মারকের সঙ্গে পেলেন ৩০,০০০ টাকা। ছিলেন অর্জুন ফুটবলার এবং সাংসদ প্রসূন ব্যানার্জি, হাওড়া (সদর) তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি এবং ডোমজুড়ের বিধায়ক কল্যাণ ঘোষ এবং বালির বিধায়ক ডা: রানা চ্যাটার্জি। ছিলেন রাজ্য ক্যারম অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিরাও।

এই প্রতিযোগিতা নিয়ে জেলা সভাপতি বলেন, '২০১১ সালে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মমতা ব্যানার্জি শপথ নেওয়ার পর থেকেই রাজ্যে ক্রীড়াক্ষেত্রে সর্বাঙ্গীন উন্নতির প্রয়াস চালানো হচ্ছে। ক্লাবগুলোকে দেওয়া হচ্ছে আর্থিক অনুদান। ফুটবল, ক্রিকেটের পাশাপাশি অন্যান্য খেলাতেও জোর দেওয়া হয়েছে।

আমি নিজে এই প্রতিযোগিতায় খেলোয়ারদের শিল্পীসুলভ পারফরম্যান্স দেখে সত্যি মুগ্ধ। তাঁরা আরও উন্নতি করুক। এই ধরনের প্রতিযোগিতা যত হবে ততই নতুন নতুন প্রতিভা উঠে আসবে। এভাবেই আমাদের রাজ্যের তরুণরা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে এগিয়ে যাবেন।' 

প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেছিলেন রাজ্যের সমবায়মন্ত্রী অরূপ রায়।গত ২১ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই প্রতিযোগিতায় সারা রাজ্যের ১৯২ জন প্রতিযোগী অংশ নিয়েছিলেন। নক আউট পর্যায়ের এই প্রতিযোগিতার ফাইনাল খেলা হল ২৩ জানুয়ারি, সোমবার। উত্তরবঙ্গের কোচবিহার, বালুরঘাট বা জলপাইগুড়ি থেকে যেমন প্রতিযোগীরা এসেছিলেন, তেমনই দক্ষিণবঙ্গের সুন্দরবন থেকেও যোগ দিয়েছিলেন। দূরের প্রতিযোগিদের জন্য ছিল থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা। একসঙ্গে খেলা হয়েছে ২২টি বোর্ডে। আয়োজনে খামতি ছিল না কোনওদিকেই। যার জন্য যাওয়ার আগে প্রতিযোগীরা জানিয়েছেন আগামীদিনেও এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে এবং তাঁদের খবর দিতে। 

এবিষয়ে বালিকেন্দ্র ক্লাব সমন্বয় সমিতির সভাপতি ভাস্করগোপাল চ্যাটার্জি বলেন, 'ফুটবল, ক্রিকেটের মতো খেলাগুলির পাশে এই খেলাগুলি অতটা জায়গা পায় না। অথচ যথেষ্টই কঠিন খেলা। এমন কিছু খেলোয়াড় আছেন যাঁদের আঙুলের ছোঁয়াও অসাধারণ। এই খেলাকে এগিয়ে নিয়ে যেতে এবং লুকিয়ে থাকা প্রতিভার খোঁজেই আমাদের এই প্রয়াস।' 

আকর্ষণীয় খবর