আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ ভোট যত এগোবে পশ্চিমবঙ্গে ততই কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা নির্বাচন কমিশনের। সেই সংখ্যাটা সর্বাধিক ৩৪০ কোম্পানি পর্যন্ত হতে পারে। কমিশন সূত্রে খবর, পরিস্থিতি এবং প্রয়োজন অনুযায়ী এই সংখ্যা বাড়তে–কমতে পারে।
জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত যা হিসেব তাতে দফাওয়াড়ি ৫০–৬০% বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকবে। তবে স্পর্শকাতর সব বুথে আধাসেনাই যে পাহারায় থাকবে সেটা চূড়ান্ত করে ফেলেছে কমিশন। রাজ্যে আধাসেনা অনেকাংশে বাড়বে। ২৯ এপ্রিল ওই দফায় বীরভূম, নদিয়া, বর্ধমান পূর্বের দু’টি করে লোকসভা কেন্দ্র এবং বহরমপুর এবং আসানসোল কেন্দ্রে ভোট হবে। সেই সময় রাজ্যে ৩১৫ কোম্পানি বাহিনী মোতায়েন করা হতে পারে। পঞ্চম দফার নির্বাচনে তা পৌঁছতে পারে ৩৪০ কোম্পানিতে। সাত দফা ভোটের শেষে স্ট্রংরুম পাহারায় থাকবে ১৪ কোম্পানি। ভোটারদের আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য প্রতিটি দফার ভোটে ৯ ‌কোম্পানি বাহিনী ব্যবহার করা হবে ।
অন্যদিকে, বেশি আধাসেনা থাকবে উত্তর ২৪ পরগনায়। ৬ মে ওই জেলার ব্যারাকপুর এবং বনগাঁ কেন্দ্রের ভোটের জন্য ৭২ কোম্পানি এবং ১৯ মে দমদম, বারাসত, বসিরহাট কেন্দ্রের জন্য ১০৯ কোম্পানি বাহিনী নামানো হতে পারে। তার পরেই মুর্শিদাবাদ। ২৩ এপ্রিল সেখানে মুর্শিদাবাদ এবং জঙ্গিপুর কেন্দ্রের ভোটে ব্যবহার করা হবে ৯৩ কোম্পানি আধাসেনা। বহরমপুরের জন্য ৩৮ কোম্পানি আধাসেনা নামানো হতে পারে। হুগলির তিনটি আসনের জন্য ১৩০ কোম্পানি বাহিনী দেওয়া হবে। মাওবাদী অধ্যুষিত ঝাড়গ্রামে যাচ্ছে ১২১ কোম্পানি। কলকাতা পুলিস এলাকায় থাকবে ৯৪ কোম্পানি।
বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় ৯৭টি কেন্দ্রে ভোট হবে। তৃতীয় দফায় ১১৫টি আসনে নির্বাচনের পরে চতুর্থ দফা থেকে ক্রমশ আসন কমতে থাকবে। ওই দফার নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী হিসেবে থাকবে বিএসএফ, সিআরপি, সিআইএসএফ, এসএসবি, আরপিএফ, আইটিপিবি। উত্তর–পূর্বের যেসব রাজ্যের ভোট শেষ হয়ে যাচ্ছে, সেখানকার পুলিসও বাংলায় এসে ভোটের নিরাপত্তার দায়িত্ব সামলাবে। 

জনপ্রিয়

Back To Top