আজকাল ওয়েবডেস্ক:‌ আইপিএলের আগে ভারতীয় দলের কোনও প্রস্তুতি শিবির সম্ভবত হচ্ছে না। যেভাবে দেশে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে, তাতে এই মুহূর্তে আমেদাবাদে প্রস্তুতি শিবির করাটা ঝুঁকিপূর্ণ মনে করছে বোর্ড। সূত্রের খবর, সবদিক ভেবেই সম্ভাব্য সেই প্রস্তুতি শিবির বাতিল করতে পারে বিসিসিআই।
আইপিএলের সূচি এখনও চূড়ান্ত না হলেও মেগা টুর্নামেন্ট শুরুর দিনক্ষণ ঘোষণা করেছে বোর্ড। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর আমিরশাহিতে শুরু আইপিএল। তার আগে ক্রিকেটারদের অন্তত সপ্তাহ তিনেকের অনুশীলন প্রয়োজন। দীর্ঘ লকডাউনে কেউই সেভাবে অনুশীলন করতে পারেননি। পুরো ম্যাচ ফিট না হলে নেমে পড়লে চোট লাগার সম্ভাবনা থাকে। তা এড়াতেই অনুশীলনের ভাবনা ছিল বোর্ডের। প্রাথমিকভাবে ঠিক হয়েছিল আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে আমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামে বায়ো সিকিওরড পরিবেশে সপ্তাহ দুয়েকের শিবির করবেন বিরাটরা। তারপর সেখান থেকেই নিজেদের ফ্রাঞ্চাইজির হয়ে আইপিএল খেলতে উড়ে যাবেন আমিরশাহি। শুধু চেতেশ্বর পুজারা ও হনুমা বিহারী আইপিএল খেলেন না। এই দু’‌জন ছাড়া বাকি ক্রিকেটারদের শিবিরে যোগ দেওয়ার কথা ছিল। 
কিন্তু গুজরাট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন সূত্রে খবর, তাঁদের কাছে এখনও কোনও আবেদন বোর্ডের তরফে জমা পড়েনি। গুজরাট ক্রিকেট সংস্থার এক আধিকারিক বলছিলেন, ‘‌শুনেছিলাম ১৮ আগস্ট একটা প্রস্তুতি শিবির শুরু হবে। চলবে ৪ সেপ্টেম্বর অবধি। কিন্তু বিসিসিআইয়ের তরফে আমাদের কাছে কোনও নির্দেশ আসেনি।’‌ বোর্ড সূত্রের খবর, এই করোনা পরিস্থিতিতে আর ঝুঁকি নিতে চাইছেন না কর্তারা। প্রথমে সব ক্রিকেটারকে নিজেদের শহর থেকে উড়িয়ে আনা। তারপর আমেদাবাদে শিবির। আবার সেখান থেকে আমিরশাহি উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া খুব ঝুঁকিপূর্ণ। তাই ওই শিবির বাতিল করার পক্ষেই মত অনেকের। তাছাড়া বিসিসিয়াইয়ের কর্তারা বলছেন, ‘‌টি–২০ টুর্নামেন্টের আগে টেস্ট দলের শিবির করে লাভটাই বা কি হবে?’‌ শোনা যাচ্ছে ক্রিকেটারদের একেবারে নিজেদের শহর থেকেই আমিরশাহিতে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হবে। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top