সংবাদ সংস্থা, লন্ডন: ভারত–অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের পর ৪৮ ঘণ্টা পেরিয়ে গেছে। কিন্তু বেনজির কোহলিয়ানায় মজে ক্রিকেট দুনিয়া। মাঠে স্মিথকে টিপ্পনী কাটায়, ব্যাটিং থামিয়ে ভারতীয় সমর্থকদের দিকে হাত তুলে সেদিন কোহলি বলেছিলেন, ‘‌এটা কী হচ্ছে। স্মিথের জন্য হাততালি দিন।’ ক্রিকেট মাঠে ভারত অধিনায়কের যে স্পিরিট, তা দেখে মুগ্ধ সুনীল গাভাসকার, স্টিভ ওয়া। গাভাসকার বলেন, ‘‌ঘটনাটা ম্যাচের মাঝেই ঘটেছিল সেদিন। ম্যাচ তখন এমন মোড়ে ছিল যে, কোহলির মাথায় বৃহত্তর ভাবনাটা না–‌ও আসতে পারত। স্মিথ নিজেও টিপ্পনী শুনে চুপ ছিল। কিছু করেনি। এমনকী পরে বলেছে, ও নাকি নিজে বুঝতেও পারেনি ব্যাপারটা। কিন্তু কোহলি যা করেছে, তা সত্যিই দুর্দান্ত। স্পোর্টসম্যান স্পিরিট বলতে আমরা এটাই বুঝি।’‌  
স্মিথ নিজের দেশের প্লেয়ার বলে নয়। কোহলি যেভাবে স্মিথের হয়ে নিজের দেশের সমর্থকদের বিরুদ্ধে গেছেন, তা দেখেই আপ্লুত স্টিভ ওয়া। বলেছেন, ‘‌নেতৃত্ব আর নেতাকে চেনা যায় নানা দিক দিয়ে। অনেক কিছু বিচার করে। বিরাট কোহলি যেভাবে নিজের দেশের সমর্থকদের ওপর বিরক্তি দেখিয়েছে, প্রতিবাদ করেছে, তা নিঃসন্দেহে তারিফ করার মতোই আচরণ। অসাধারণ মনোভাব।’‌ শুধু বিরাটকে নিয়ে নয়। হার্দিক পান্ডিয়াকে নিয়েও কথা বলেছেন স্টিভ ওয়া। তিনি ভারতের এই অলরাউন্ডারকে ক্লুজনারের সঙ্গে তুলনা করেছেন। বলেছেন, ‘‌হার্দিক সেদিন যে ইনিংসটা খেলেছিল, তা বিপক্ষের মেরুদণ্ড ভেঙে দিয়েছিল। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে ক্লুজনার যে ভূমিকা নিয়েছিল, হার্দিক অনেকটা সেই দায়িত্ব নিচ্ছে। আসলে ও এতই নিখুঁত শট মারে যে, বিপক্ষের ক্যাপ্টেনের কিছুই করার থাকে না।’‌ 
তবে ভারতের কাছে হারলেও অস্ট্রেলিয়া সেমিফাইনালে পৌঁছতে পারে, আশায় প্রাক্তন অসি অধিনায়ক। বলেছেন, ‘‌এই হারের ধাক্কা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর ক্ষমতা অস্ট্রেলিয়ার আছে। তবে ব্যাটিং, বোলিংয়ে কিছু পরিবর্তন দরকার। সেটা সেমিফাইনালের আগেই দল বদলে ফেলবে মনে হয়।’‌ ‌
আর ভারত?‌ বিরাটদের কি সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন বলবেন?‌ স্টিভের জবাব, ‘‌ভারতীয় ব্যাটিংয়ে পরিকল্পনার ছাপ স্পষ্ট। আর সেই পরিকল্পনা সম্পর্কে ওদের দলের প্রত্যেক প্লেয়ারের স্বচ্ছ ধারনা আছে। ভারত চাইছে, সবার আগে পায়ের নিচের মাটি মজবুত করতে। উইকেট যেন না হারায়, সে খেয়ালও রাখছে।’‌ 
 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top