‌সংবাদ সংস্থা, ম্যাঞ্চেস্টার: বেন স্টোকসের নেতৃত্বে প্রথম টেস্ট হারার পর এবার নিয়মিত অধিনায়ক জো রুটকে ঘিরেই সিরিজে সমতা ফেরানোর স্বপ্ন দেখছে ইংল্যান্ড। দ্বিতীয় সন্তানের জন্মের জন্য প্রথম টেস্টে খেলেননি রুট। এবার তাঁর সামনে কঠিন লড়াই। সিরিজ জিততে গেলে বাকি দুটি টেস্টেই জয় দরকার।
সিরিজের প্রথম টেস্ট হারা ইংল্যান্ডের কাছে নতুন নয়। শেষ দশবারে আটবারই এরকম হয়েছে। শেষবার দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে প্রথম টেস্ট হেরেও সিরিজ ৩–১ জিতেছিল ইংল্যান্ড। তবে আত্মবিশ্বাসী ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে কাজটা আরও কঠিন। রুট আসায় বাদ পড়তে হচ্ছে জো ডেনলিকে। কারণ প্রথম টেস্টে ভাল খেলেছেন জাক ক্রলি। তবে এই টেস্টেও দলে জায়গা হচ্ছে না স্টুয়ার্ট ব্রডের। রুটকে নিয়ে আশাবাদী ইংল্যান্ড কোচ ক্রিস সিলভারউড বলেছেন, ‘‌আমরা সবাই চাই জো ভাল খেলুক। তবে ও চাপে রয়েছে। জাকও খারাপ খেলছে না। ক্রমশ ওর মানসিকতার উন্নতি হচ্ছে।’‌ ফর্মহীন জোস বাটলারকে এই টেস্টেও সুযোগ দেওয়া হবে।
এদিকে, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যান জার্মেইন ব্ল্যাকউড বলেছেন, দ্বিতীয় ইনিংসে প্রথম বল থেকেই তাঁকে স্লেজিং করছিলেন স্টোকস। ব্ল্যাকউডের কথায়, ‘‌ওরা বোধহয় চাইছিল আমি বাজে শট খেলে আউট হই। ঠিক কী বলছিল মনে পড়ছে না। কিন্তু বাজে কিছু নয়। এটা ক্রিকেট। এখানে স্লেজিং হবেই এবং এভাবেই আমরা অভ্যস্ত। কিন্তু কোনওসময়েই ওদের কথা কোনও প্রভাব ফেলেনি। ক্রিজে যাওয়ার পর ওরাই চাপে পড়েছিল, আমি নয়। জানতো আমাকে লুজ বল করা চলবে না।’‌
নার্ভ ধরে রাখার জন্য ব্ল্যাকউডের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন ক্যারিবিয়ান কোচ ফিল সিমন্স।‌‌‌ বলেছেন, ‘‌ইংল্যান্ড ঠিক কী করছিল সেটা দেখিনি। তবে আমি ওদের জায়গায় থাকলে ব্ল্যাকউডের ফোকাস নড়িয়ে দিতে চাইতাম। কিন্তু ও মাথা উঁচু করে পরিস্থিতি দারুণভাবে সামলেছে। এতেই বোঝা যাচ্ছে ওর মানসিকতায় বদল এসেছে।’‌ পাশাপাশি সিমন্সের সংযোজন, ‘‌অনেকদিন ধরেই অনুশীলন করেছি এখানে। পরিস্থিতির সঙ্গে দারুণভাবে মানিয়ে নিয়েছি। তারই ফল টেস্ট জয়।’‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top