সংবাদ সংস্থা, সিডনি: খেলোয়াড় জীবনে খুব কমবারই তাঁকে বিতর্কে জড়াতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু ম্যাচ রেফারি হিসেবে হঠাৎই বড়সড় বিতর্কে জড়িয়ে গেলেন জাভাগাল শ্রীনাথ। রবিবার অস্ট্রেলিয়া বনাম পাকিস্তানের প্রথম টি২০ ম্যাচে তাঁর ভূমিকা নিয়ে হঠাৎই প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। নাম না করে তাঁকেই আক্রমণ করেছেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।
এদিনের ম্যাচে সকাল থেকেই আকাশের মুখ ভার ছিল। মাঝেমাঝেই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হচ্ছিল। টি২০ ম্যাচেও বৃষ্টি পিছু ছাড়েনি। অবস্থা বেগতিক দেখে ওভারসংখ্যা কমিয়ে দেন আম্পায়াররা। ২০ ওভারের বদলে ম্যাচ দাঁড়ায় ১৫ ওভারের। পাকিস্তান পুরো ইনিংস খেললেও, অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসের চতুর্থ ওভারে নামে বৃষ্টি। ফের ম্যাচ চালু করা যায়নি। এটা নিয়েই আপত্তি তুলেছেন ফিঞ্চ। তাঁর দাবি, ওভারের সংখ্যা কমিয়ে দেওয়া হলেও কেন দু’‌ইনিংসের মাঝে ২০ মিনিটের বিরতি দেওয়া হল। কেন সময় কমানো হল না।
ফিঞ্চের দাবি মোটেই অযৌক্তিক নয়। ডাকওয়ার্থ–লুইস নিয়ম অনুসারে অস্ট্রেলিয়াকে পাঁচ ওভার খেলতেই হত। সেক্ষেত্রে ৩৯ রান স্কোরবোর্ডে থাকলেই জিতত তারা। কিন্তু ৩.‌১ ওভার খেলা হওয়ায় জয় অধরাই থাকল। এত কাছাকাছি এসে সুযোগ হাতছাড়া হওয়া কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না ক্রিকেটাররা। নাম না করলেও ক্রিকেটারদের যাবতীয় অভিযোগ ম্যাচ রেফারি শ্রীনাথের দিকেই। প্রাক্তন ভারতীয় বোলারকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন তাঁরা। ম্যাচের পর ফিঞ্চ বলছিলেন, ‘‌ওভার কমিয়ে দেওয়া সত্ত্বেও ২০ মিনিটের বিরতির কোনও অর্থ নেই। সময় কমিয়ে তাড়াতাড়ি দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করা দরকার ছিল। কিন্তু এটা নিয়মের মধ্যেই, তাই আমি আপত্তি জানালেও কোনও লাভ নেই।’‌
আইসিসি–র আইনের ১১.‌৪.‌২ অনুযায়ী, প্রথমে ব্যাট করা দলের ইনিংস অনেক দেরিতে শুরু হলে বা বারবার বাধাপ্রাপ্ত হলে ম্যাচ রেফারি তাঁর ক্ষমতাবলে ইনিংস বিরতি ২০ মিনিট থেকে কমিয়ে ১০ মিনিট করে দিতে পারেন।’‌ অসি ক্রিকেটাররা বারবার আবেদন করলেও শ্রীনাথ কর্ণপাত করেননি। সহ–অধিনায়ক অ্যালেক্স ক্যারে বলেছেন, ‘‌আমরা বারবার সময় কমানোর আবেদন করছিলাম। কিন্তু আমাদের বলা হয়, নিয়ম যা আছে তাই থাকবে এবং ম্যাচ ২০ মিনিট বাদেই শুরু হবে। যেহেতু তা নিয়মের মধ্যে তাই আমাদের কিছু করার ছিল না।’‌
ইমরান খানের পর এদিন সবথেকে বেশি বয়সে পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেললেন মহম্মদ ইরফান। ইমরান শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন ৩৯ বছর বয়সে। ইরফানের বয়স এখন ৩৭। শ্রীলঙ্কার কাছে ঘরের মাঠে টি২০ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পরেও এই ফরম্যাটে বিশ্বের এক নম্বর দল হিসেবে খেলতে নেমেছিল পাকিস্তান। এদিনের ম্যাচ ভেস্তে যাওয়ায় তারা যেন হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছে। ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই ফিরে যান ফাখার জামান। এরপর নিয়মিত ব্যবধানে পাকিস্তানের উইকেট পড়তে থাকে। একমাত্র ৫৯ করে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক বাবর আজম। ১০৭/‌৫ তোলে পাকিস্তান।
ডাকওয়ার্থ–লুইস মেথডে অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্যমাত্রা দাঁড়ায় ১১৯। শুরু থেকেই ঝড়ের বেগে রান তুলতে শুরু করেন ফিঞ্চ। পাঁচটা চার এবং দুটি ছয়ের সাহায্যে ১৬ বলে ৩৭ তুলে ফেলেন। অপরপ্রান্তে ডেভিড ওয়ার্নারের রান মাত্র ২। ৩.‌১ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার স্কোর যখন বিনা উইকেটে ৪১, তখন ফের বৃষ্টি নামে। আর খেলা চালানো যায়নি।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top