সংবাদ সংস্থা, দিল্লি: মহেন্দ্র সিং ধোনি সম্পর্কে এক নতুন ও চমকপ্রদ তথ্য দিলেন সাইমন টাফেল। কঠিন সময়েও রসবোধ হারান না মাহি, জানালেন আইসিসি–র এলিট প্যানেলের প্রাক্তন এই আম্পায়ার। দশ বছর আগে টাফেলের মুখে এক ম্যাচ নির্বাসিত হতে পারেন শুনেও ঘাবড়ে না গিয়ে রসিকতা করেছিলেন ধোনি। ক্যাপ্টেন কুল মজা করে বলেছিলেন, ‘‌আমার ছুটি দরকার।’‌ 
২০১০ সালে ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে টেস্ট সিরিজের সময় শ্রীশান্তের মন্থর বোলিংয়ের জন্য অধিনায়ক হিসেবে ধোনিকে ডেকে সতর্ক করেছিলেন টাফেল। আর একবার একই ঘটনা ঘটলে ভারত ‌অধিনায়ককে এক ম্যাচে নির্বাসিত করা হবে বলে জানান তিনি। আম্পায়ারের মুখ থেকে এরকম কথা শুনে যে–‌কোনও ‌অধিনায়কই আড়ষ্ট হয়ে যাবেন, চাপে পড়ে যাবেন। কিন্তু ধোনি ব্যতিক্রম। আড়ষ্ট হওয়া তো দূর, ধোনি উল্টে রসিকতা করেছিলেন ওই মুহূর্তে।‌‌ 
একটি ক্রিকেট পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে টাফেল সেই গল্প বলেছেন, ‘‌‘‌সেবার কেপ টাউন টেস্টে অত্যন্ত মন্থর বোলিং করেছিল শ্রীশান্ত। এক–একটা ওভার বল করতে সাত–আট মিনিট করে সময় নিয়েছিল। তাই ডারবানের কিংসমিডে ভারত–দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্টের সময় শ্রীশান্তের মন্থর বোলিং করা নিয়ে ধোনিকে ডেকে সতর্ক করে দিয়েছিলাম। ড্রেসিংরুমে বসেই আমরা আলোচনা করেছিলাম। ধোনিকে বলেছিলাম, ডারবান টেস্টেও বোলার যদি একই ভুল করে তোমাকে কিন্তু ছুটিতে যেতে হবে। এক ম্যাচে নির্বাসিত হবে। ধোনি সঙ্গে সঙ্গেই বলেছিল, ‘‌ঠিক আছে। ভালই তো। আমার ছুটি দরকার। একটা ম্যাচে ছুটি পেলে ভালই হবে। তবে চিন্তা করো না, শ্রী (‌‌শ্রীশান্ত)‌‌ ডারবানে খেলছে না।’‌ শান্ত স্বরে কথাগুলো বলেছিল ধোনি। ড্রেসিংরুমে কালো রঙের চেয়ারে বসে। অদ্ভুত ব্যাপার হল, ওর মন তখন চেয়ারের দিকেই ছিল!‌ চামড়ার তৈরি এরকম চেয়ার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া যায় কিনা, সেসব নিয়েই ভেবে চলছিল!‌ অথচ আমি কথা বলছিলাম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং গুরুগম্ভীর বিষয়ে। মন্থর বোলিং, নির্বাসন নিয়ে। ধোনির সেসব নিয়ে উদ্বেগই ছিল না!‌ আসলে ও এমনই। চাপের মুখেও এতটাই শান্ত, স্থির, নিরুদ্বেগ। রসিকও।’‌’‌
বারো বছরের বেশি সময় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আম্পায়ারিং করা টাফেল এরপর ধোনির ক্রিকেট মস্তিষ্কের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন। বলেছেন, ‘‌ধোনির ক্রিকেট মস্তিষ্ক ক্ষুরধার। ঝকঝকে। দুর্ধর্ষ পরিকল্পনা সাজায়। ক্রিকেট খেলাটা দারুণ বোঝে। দুর্দান্ত মানসিকতা। ওর ধৈর্যও অসম্ভব। চাপের মুখে কখনওই বিচলিত হয় না। আমার দেখা অন্যতম বুদ্ধিমান ক্যাপ্টেন।’‌  ‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top