দেবাশিস দত্ত
ইসিবি–র বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অ্যান্ডি রবার্টস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বত্রাস জোরে বোলার মনে করছেন তাঁর দেশের ক্রিকেটারদের সঙ্গে গিনিপিগের মতো ব্যবহার করা হচ্ছে। 
জানা গেল, চলতি গ্রীষ্মে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দুটি সিরিজ আয়োজন করতে না পারলে ইংল্যান্ড ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (‌ইসিবি)‌ দেউলিয়া হয়ে যেত। স্কাই স্পোর্টস এবং বিবিসি–র সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল যে দুটি সিরিজের আয়োজন করতে না পারলে ইসিবি–কে ৩৮০ মিলিয়ন পাউন্ড জরিমানা দিতে হবে (‌ভারতীয় মুদ্রায় ৩৫৬৫ কোটি ৫০ লক্ষ ৬২,৫৭৯ টাকা)‌। ২০২০ থেকে ২০২৪ পর্যন্ত প্রতি বছর অন্তত ২টি করে বিদেশি দলকে আমন্ত্রণ জানালে ইসিবি–র কোষাগারে আসবে ১.‌১ বিলিয়ন পাউন্ড (‌ভারতীয় মুদ্রায় ১০,৩১৮ কোটি ৬০ লক্ষ ৮৩ হাজার টাকা)‌। করোনার কারণে এই চুক্তি বাতিল হয়ে যায়, এটা ইসিবি না চাওয়ায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানকে নিজেদের সব খরচে ২টি দলকে নিজেদের দেশ থেকে উড়িয়ে আনা হচ্ছে। বার্বাডোজ থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ২৫ জন ক্রিকেটারকে উড়িয়ে আনতে খরচ হয়েছে ৪ কোটি টাকা। ওই বিমানে আর কোনও যাত্রী তোলা হয়নি। ম্যাঞ্চেস্টার হিলটন হোটেলে রাখা হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে। লাগোয়া মাঠে প্র‌্যাকটিস, খাওয়া–দাওয়া, চিকিৎসার সব খরচ ইসিবি বহন করছে। এমনকি, ওয়েস্ট ইন্ডিজ বোর্ডকে ৩ কোটি টাকা ধার পর্যন্ত দিয়েছে ইসিবি।
এখানেই অ্যান্ডি রবার্টসের প্রশ্ন, ‘‌খরচ হচ্ছে না বলে ২৫ জন ক্রিকেটারকে করোনার মুখোমুখি ফেলে দিতে হবে?‌ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটাররা তো আর গিনিপিগ নয়।’‌ জীবাণুমুক্ত পরিবেশে ক্রিকেটারদের রাখা হচ্ছে শুনেও রবার্টস বললেন, ‘‌হোয়াই ওনলি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ব্রিটেন তো করোনা–মুক্ত নয়। সামান্য কিছু পাউন্ডের বিনিময়ে চলে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ— আমার বিস্ময়ের ঘোর কিছুতেই কাটছে না। ‌ইসিবি–র তাড়াটা বুঝুন। নিজেদের প্রয়োজনে ওরা ৪ কোটি টাকা খরচ করল চার্টার্ড বিমানে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিয়ে যাওয়ার জন্য।’‌ (‌পাকিস্তান দলকেও ইসিবি চার্টার্ড ফ্লাইটে বিলেতে উড়িয়ে নিয়ে যাবে)‌। এ সব জেনেশুনেও আইসিসি মুখে কুলুপ এঁটে বসে আছে।‌‌‌

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top