আজকালের প্রতিবেদন
গত বছর জুন মাসে গমগম করছিল সাদামটন। এজিয়াস বোলে বিশ্বকাপে ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা। তারপর আবার ভারত বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতীয় সমর্থকদের উচ্ছ্বাস, তেরঙ্গার দাপাদাপি কী না ছিল সাদামটনে!
এক বছরে বদলে গেছে পৃথিবী। বদলে দিয়েছে করোনাভাইরাস। কোভিড–১৯–এর ফলে বদল ঘটেছে বিশ্ব ক্রিকেটেও। সাড়ে তিন মাস পরে বুধবার ক্রিকেট ফিরল সেই সাদামটনে। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে। সম্পূর্ণ অচেনা ছবি। যা অভূতপূর্ব। কোভিড–১৯ অতিমারীর কারণে জৈব নিরাপদ পরিবেশের হাত ধরে ফিরল টেস্ট ক্রিকেট। ইংল্যান্ড বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যেখানে বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথমদিনে ক্রিকেট ছাপিয়ে বড় হয়ে উঠল দূরত্ববিধির নানা প্রকরণ। 
সামাজিক দূরত্ব সর্বত্র। ফাঁকা গ্যালারি। দুটো ড্রেসিংরুমে ইংল্যান্ড এবং ক্যারিবিয়ান দলের ক্রিকেটার এবং কোচিং স্টাফেরা। মাঠের ধারে মাঠকর্মীরা। যাঁদের মুখে মাস্ক। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের নয়া বিধিনিষেধ মেনেই ক্রিকেটীয় যাত্রা।
ম্যাচ রেফারির সামনে টস হওয়ার পর (টসে জিতে ইংল্যান্ড ব্যাটিং নিয়েছিল) ইংল্যান্ড অধিনায়ক বেন স্টোকস পুরনো অভ্যাসবশত ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক েজসন হোল্ডারের সঙ্গে করমর্দন করতে িগয়েছিলেন। হোল্ডার হাত সরিয়ে নেন। তারপর বিধি মেনে কনুইয়ে কনুই ঠেকান দু–জন। যা নিয়ে একপ্রস্ত হাসাহাসিও হয় দুই অধিনায়কের মধ্যে। দুই অধিনায়ক টস–পরবর্তী সাক্ষাৎকার দিলেন ক্যামেরাম্যানহীন ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়ে। সম্প্রচারক সংস্থার তরফে কমেন্ট্রি বক্স থেকে স্টোকস এবং হোল্ডারকে প্রশ্ন করা হল। তাঁরা সেই প্রশ্নেরই জবাব দিলেন ক্যামেরার লেন্সের দিকে তাকিয়ে। বস্তুত, টসের সময় হাতে মাইক্রোফোন নিয়েই নেমেছিলেন দুই অধিনায়ক। তাঁরা জানতেন অতঃপর কী করণীয়। বিশ্বক্রিকেটে এই দৃশ্যও অভূতপূর্ব। সামাজিক দূরত্ব কমেন্ট্রি বক্সেও। আগে এক টেবিলে দু’জন ধারাভাষ্যকার বসতেন। নয়া পরিস্থিতিতে দু’জনের জন্য দুটি আলাদা েটবিল। দূরত্ব বজায় রেখে। যেমন ম্যাচ কভারকারী সাংবাদিকদের জন্যও প্রেস বক্সে দূরত্ব রেখে আলাদা আলাদা টেবিল–চেয়ার।  
মার্কিন মুলুকে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু বদলে দিয়েছে যাবতীয় ধ্যানধারণা। খেলার মাঠে নিয়ে এসেছে স্লোগান— ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’। এদিনও ক্যাবিরিয়ান দল সেই সংকল্পে অটুট থেকে প্রথম বলের আগে হাঁটু মুড়ে বসল মাঠে।  শামিল হলেন দুই ইংরেজ ওপেনার এবং আম্পায়াররা। দু’দলের ক্রিকেটারদের হাতেই ছিল ‘ব্ল্যাক ব্যান্ড’। করোনায় মৃতরা এবং প্রয়াত এভার্টন উইকসের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে।
বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম দিনে ইংল্যান্ডের ওপেনার  ডম সিবলি গ্যাব্রিয়েলকে জাজমেন্ট দিয়ে বোল্ড হয়েছএন শূন্য রানে। উইকেট নেওয়ার পর অবশ্য ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটারেরা ‘হাই ফাইভ’ করলেন গ্যাব্রিয়েলের সঙ্গে। তবে বলে থুতু ব্যবহার করা হয়নি। 
স্কোর বোর্ড: ইংল্যান্ড ৩৫/১ (প্রথম ইনিংস)। বার্নস অপরাজিত ২০, সিবলি ব গ্যাব্রিয়েল ০, ডেনলি অপরাজিত ১৪। মোট  ৩৫/১ (১৭.৪ ওভার)  উইকেট পতন: ০/১,। বোলিং: রোচ ৬–৪–২–০, গ্যাব্রিয়েল ৫–১–১৯–১, জোসেফ ৩.৪–১–১১–০, হোল্ডার ৩–১–৩–০ (চা–বিরতি পর্যন্ত)।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
জনপ্রিয়

Back To Top